মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০

স্পর্ধায় সীমা ছাড়িয়ে জিনপিং সরকার, মসজিদ ভেঙে শৌচালয় চিনে! বিস্তারিত পড়ুন


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: মুসলিমদের দু’চোখে সহ্য করতে পারে না চিন। একথা বলার সাপেক্ষে উদাহরণ ও প্রমাণ রয়েছে একাগাদা। কেউ যদি বলেন চিন উইঘুর মুসলিমদের জন্য তাদের দেশে শিক্ষামূলক এজেন্ডা হাতে নিয়েছে তাহলে তা হবে তার অজ্ঞতা। সম্প্রতি এক রিপোর্ট প্রকাশ পেয়েছিল। তাতে উঠে এসেছিল মুসলিমদের ওপর চিন প্রশাসনের অত্যাচারদমনের হকিকত। এক রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছিল,চিন তার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকায় পাঁচ হাজারেরও বেশি মসজিদ গুঁড়িয়ে দিয়েছে। চিনের এমন কুৎসিত কারনামা দেখার পরও বিশ্ব উদাসীন ছিল।

ইরান,তুরস্ক ও মালয়েশিয়ার মতো গুটি কয়েক ইসলামি দেশ প্রতিবাদ জানালেও সউদি আরব নিয়ন্ত্রিত ওআইসি, জিসিসি বা রাষ্ট্রসংঘ থেকেও কোনও মন্তব্য আসেনি। তবে চিনের বিরুদ্ধে এবার ইসলাম ধর্মকে অবমাননার অভিযোগ উঠল। জানা যাচ্ছে, মসজিদ ভেঙে সেই স্থানে সার্বজনীন শৌচালয় তৈরি করার নির্দেশ দিচ্ছে প্রশাসন।এ নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক শুরু হলেও এর প্রতিবাদ জানায়নি কোনও ইসলামি সংগঠন বা রাষ্ট্র।

এ প্রসঙ্গে চিনের শিনজিয়াং প্রদেশের নাগরিক এক উইঘুর বাসিন্দা জানিয়েছেন, ২০১৮ সালে শি জিনপিংয়ের সরকার শিনজিয়াং প্রদেশের আতুশ এলাকার সুনতাগ গ্রামের টোকুল নামের ওই মসজিদটি ভেঙে ফেলে। স্থানীয় মুসলিমরা প্রতিবাদ করলেও জোর করেই সেই স্থানে সুলভ শৌচালয় নির্মিত হয়। তবে সেটি এখনও ব্যবহারের জন্য খুলে দেওয়া হয়নি। স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই এলাকার প্রতিটি মানুষের বাড়িতে শৌচালয় রয়েছে। তাই শুধুমাত্র মুসলিমদের ধর্মীয় আবেগে আঘাত করার জন্যই এমন পদক্ষেপ নিয়েছে চিন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only