বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০

একদিনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা কমল ৫৪ হাজার

 

দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে সংক্রমণ বেড়েই চলেছে করোনা ভাইরাসের। গত শুক্রবারই একদিনে সংক্রমণ ৬০,০০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। তারপর থেকে অব্যাহত ছিল সেই ধারা। সোমবারও নতুন করে আরও ৬২,০৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। মৃত্য‍ু হয় এক হাজারেরও বেশি মানুষের। তবে সেই সংখ্যায় কিছুটা স্বস্তি মিলল মঙ্গলবার। এ দিন আক্রান্তের সংখ্যা নেমেছে ৫৫ হাজারের নীচে।


১৩৩ কোটির জন্য একগুচ্ছ সুখবর ছিল এ দিনের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের করোনা বুলেটিনে। গত পাঁচদিনের সবচেয়ে আশাপ্রদ ছবিটা তুলে ধরল মঙ্গলবারের স্বাস্থ্য বুলেটিন। কেন্দ্রীয় সরকারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী গত চব্বিশ ঘণ্টায় দেশে কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ হাজার ৬০১ জন। উল্লেখ্য, আগস্টে প্রথম থেকেই যখন ৬০ হাজার ছাড়াচ্ছিল করোনা গ্রাফ, তখন আজকের পরিসংখ্যান আশা জোগাচ্ছে। একইসঙ্গে কমেছে করোনা পজিটিভিটি রেটও। সোমবার যেখানে পজিভিটি রেট ছিল ১৩ শতাংশ, মঙ্গলবারের পরিসংখ্যানে প্রকাশ পজিটিভিটি রেট পৌঁছেছে ৭.৬৮ শতাংশে। 


অর্থাৎ মোট পরীক্ষার মধ্যে আত্রান্তের হার এই। দারুণ সুখবর দিচ্ছে রাজধানী দিল্লিও। আরোগ্যের হার রাজধানীতে নব্বই শতাংশেরও বেশি। তবে আশঙ্কা রয়েছে তামিলনাড়‍ুকে নিয়ে। শুধু এই রাজ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ছাড়িয়েছে। চব্বিশ ঘণ্টায় দেশজুড়ে করোনায় মৃত্য‍ু হয়েছে ৮৭১ জনের। সারাবিশ্বে যখন করোনায় মৃত্যুহার তুল্যমূল্য ৩.৬৫ শতাংশ। ভারতে তখন গড় ১.৯৯ শতাংশ।


চলতি বছর জানুয়ারিতে প্রথম করোনা আক্রান্ত ধরা পরার পর থেকে মাত্র ১৮৬ দিনে সংক্রমিতের সংখ্যা ১৮ লাখ ছাড়িয়ে যায় দেশে। এক লাখ সংক্রমণের গণ্ডি ছাড়াতে সময় নিয়েছিল ১১০ দিন। মোট সংক্রমণের ৬০ শতাংশ এবং মোট মৃত্যুর ৫০ শতাংশেরও বেশি হয়েছে গত জুলাই মাসেই। আর ১০ লাখ পেরনোর পর মোট আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হতে সময় নেয় মাত্র ২১ দিন। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only