বুধবার, ১৯ আগস্ট, ২০২০

‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ হলে ‘মুসলিম লাইভস ম্যাটার’ নয় কেন? প্রশ্ন এই ফুটবল তারকার


পুবের কলম, ওয়েব ডেস্ক: এবার নিজের ক্লাব আর্সেলানের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন জার্মান ফুটবলার মেসুট ওজিল। দীর্ঘদিন ধরেই চিনের জিংজিয়াং প্রদেশের উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে হওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছেন ওজিল। উইঘুর মুসলিমদের ওপর চিনের করা অত্যাচারের বিরুদ্ধে তিনি সরব হলেও তাঁর বর্তমান ক্লাব আর্সেনাল পাশে না দাঁড়িয়ে পাশ কাটিয়ে বেরিয়ে যাওয়ায় বেশ চোটেছেন ওজিল। নিজের করা ট্যুইট ও আর্সেনালের ভূমিকা নিয়ে ওজিল বলেন, ‘আমি যা বলেছি, তা চাইনিজদের বিরুদ্ধে নয়। সেটা ছিল যারা উইঘুর মুসলিমদের ওপর অত্যাচার করছে, তাদের বিরুদ্ধে। বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম দেশগুলির বিরুদ্ধে। যারা সব দেখেও চুপ রয়েছে। তাদের চুপ থাকায় আমি হতাশ হয়েছি। আমার ক্লাব দাবি করেছিল– তারা রাজনীতিতে জড়িত হয় না। কিন্তু এটা তো রাজনীতি নয়, তারা তো আগেও এই ধরণের অনেক ইস্যুতে যোগ দিয়েছিল।’

গতবছরই উইঘুর মুসলিমদের বিরুদ্ধে চিনের অত্যাচারের প্রতিবাদ জানিয়ে সরব হয়েছিলেন ওজিল। তুরস্ক থেকে প্রায় দশ লক্ষেরও বেশি উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায় চিনে শরণার্থী হিসেবে রয়েছেন। কিন্তু যেভাবে তাঁদের ওপর চিনা সরকার অত্যাচার চালাচ্ছে, তা মন থেকে কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না ওজিল। সেটা মাথায় রেখে নিজের ইনস্টাগ্রামে ওজিল বলেছিলেন, ‘চিনারা কুরআন পুড়িয়ে দিচ্ছে। তারা উইঘুর মুসলিমদের মসজিদের যেতে বাধা দিচ্ছে। মসজিদ বন্ধ করে দিচ্ছে। স্কুল বন্ধ করে দিচ্ছে। তাদের ধর্মীয় নেতাদের হত্যা করছে। পুরুষদের জোর করে ক্যাম্পে বন্দি করা হচ্ছে। মহিলাদের জোর করে চিনাদের সঙ্গে থাকতে বাধ্য করা হচ্ছে। কিন্তু মুসলিমরা এ সব দেখেও চুপ করে রয়েছে। তারা কোনও প্রতিবাদ করছে না। ওরা উইঘুর মুসলিমদের ভুলে গিয়েছে। তারা কি জানে না– অন্যায় করা এবং অন্যায় সহ্য করা একই ধরনের অপরাধ।’

উইঘুর মুসলিমদের ওপর হওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে ওজিল আওয়াজ তুললেও, তাঁর ক্লাব আর্সেনাল বিষয়টি নিয়ে অদ্ভ$তভাবে চুপ ছিল। ওজিল তাই বিরক্ত হয়ে জানতে চেয়েছিলেন,আর্সেনাল কেন এ বিষয়ে মুখ খুলছে না? জবাবে আর্সেনাল জানিয়েছিল, ওজিলের মন্তব্যের সঙ্গে ক্লাবের মতাদর্শের কোনও সম্পর্ক নেই। আর্সেনাল সব সময় একটি অরাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান। উইঘুর মুসলিম প্রসঙ্গে গার্নাসরা চুপ থাকলেও, সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্টেÉ শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ বাস্কেটবল খেলোয়াড় জর্জ ফ্লয়েডের মৃতু্যর প্রতিবাদে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকে সমর্থন করেছিল। আর এই বিষয়টি ওজিলকে অনেক বেশি কষ্ট দিয়েছে। ওজিল মনে করেন আর্সেনাল যেখানে ব্ল্যাক লাইফ ম্যাটার নিয়ে সরব হয়েছে, সেখানে মুসলিম লাইভস ম্যাটার নয় কেন? এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘সব মানুষই সমান। আপনি মুসলিম, খ্রিস্টান, জিউ,কালো সাদা যা কিছু হতে পারেন। কিন্তু বিভেদ কেন থাকবে। যে ধর্ম বা সম্প্রদায়েরই হোক না কেন, এটা কোনও বিষয় নয়। আমরা সবাই সমান।’

জর্জ ফ্লয়েড প্রসঙ্গে ক্লাবের ভুমিকা নিয়ে তুর্কি তারকার বক্তব্য, ‘আমেরিকায় দেখলাম জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যা করা হল– সেখানে পুরো বিশ্ব ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন নিয়ে সবাই মুখ খুললো। এটা সঠিক সিদ্ধান্ত। আমরা সবাই সমান। অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করা অবশ্যই ভালো কাজ। অনেক কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় এবং ফুটবলার আর্সেনামে আছে। ক্লাব তাদের পাশে দাঁড়িয়ে খুবই ভালো কাজ করেছে। কিন্তু আমি আশা করেছিলাম, মুসলিমদের ক্ষেত্রেও একই কাজ করবে আর্সেনাল। কারণ, আর্সেনালেও বহু মুসলিম ফুটবলার খেলেন এবং তাদের বহু মুসলিম সমর্থকও রয়েছে। আর্সেনালের পাশাপাশি পুরো বিশ্বেরও উচিত এখন এটা বলার, ‘মুসলিম লাইভস ম্যাটার’। আর্সেনালকে আমি অনেক কিছু দিয়েছি। মাঠে ও মাঠের বাইরে। তাই এ ব্যাপারে আর্সেনালের অবস্থানে আমি বেশ হতাশ। ওরা যদি অন্য ইস্যুতে মুখ খুলতে পারে, তাহলে উইঘুর মুসলিদের ইস্যুতে মুখ খুললো না।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only