সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০

মজলুমদের ওপর অত্যাচার চলছেই, কিভাবে বন্ধ করা হল গাজার ফিশিং লাইন? বিস্তারিত পড়ুন


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: এ কেমন বিচার? নিরীহদের ওপর অত্যাচার চালিয়ে কোন মানবতার পরিচয় রাখছে ইসরাইল? মজলুম ফিলিস্তিনিদের ওপর দমনমূলক ও আগ্রাসী হামলা চালিয়ে ফের একবার বর্বরতার পরিচয় রাখল নেতানিয়াহুর খুনি সেনা। ফিলিস্তিনের গাজায় স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতভর বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। 

এরপর ফিলিস্তিনি জেলেদের উপার্জনের একমাত্র উৎস্য সমূদ্র সৈকত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতদিন অবরুদ্ধ গাজার মানুষজন সমুদ্রে মৎস্য শিকার করে জীবীকা নির্বাহ করতেন। এখন তাদের আয়ের রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকেই বেকার হয়ে পড়েছেন। গত এক মাস ধরে গাজায় হামলা বাড়িয়ে দিয়েছে ইসরাইল। 

ইসরাইলের দাবি, অধিকারের দাবিতে সরব ফিলিস্তিনি বিদ্রোহীরা তাদের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি করছে। সূত্রের খবর,গাজায় বিমান হামলার পর হামাস নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলে দুটি রকেট ছোঁড়া হয়। ইসরাইল বলছে, আয়রন ডোম ফিলিস্তিন থেকে ছোঁড়া ওই রকেট দুটি প্রতিহত করেছে। 

ইসরাইলি বাহিনীর হামলার জবাবে হামাস মুখপাত্র ফাউজি বারহাম বলেছেন,এই আগ্রাসী নীতি গাজায় আমাদের জনগণের জীবনকে আরও সঙ্কটময় করে তুলেছে। তাদের নিত্যদিনের জীবনধারাকে বিকল করে দিয়েছে। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইকে বিঘ্নিত করছে। অথচ আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক দেশগুলো এ বিষয়ে নীরব। গাজা উপত্যকার সঙ্গে পণ্য পরিবহনের সীমান্ত পয়েন্ট কারিম আবু সালেমও বন্ধ করে দিয়েছে ইসরাইল। 

ইসরাইলি সেনা গাজা উপত্যকায় ফিশিং জোন বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পরবর্তী নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত তা বন্ধ থাকবে। ইসরাইলের এমন সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়েছে হামাস।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only