মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০

তুরস্কে আমির, ফার্স্ট লেডি আমিনার মুখোমুখি, প্রতিক্রিয়ার ঝড় উঠছে দেশে! বিস্তারিত পড়ুন


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: সিনেমার শুটিং করতে তুরস্ক সফরে গিয়েছেন বলিউডের সুপারস্টার আমির খান। অতিথি হিসেবে ইস্তান্বুলের মাটিতে পা রাখলে শনিবার তাঁকে স্বাগত জানান তুর্কি ফার্স্টলেডি আমিনা এরদোগান। আমিরের সম্মানে রবিবার ইস্তান্বুলের সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন রাষ্ট্রপতির ভবন ‘হুবের ম্যানসনে’ নৈশভোজ দেন আমিনা।

জানা গিয়েছে, আমিরের আবেদনে সাড়া দিয়েই আমিনা তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় দেন। খরা পীড়িত অঞ্চলে বিশুদ্ধ পানীয় জল প্রকল্প ছাড়াও সমাজ ও শিশুকল্যাণ বিষয়ে তাঁদের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ কথাবার্তা হয়। উল্লেখ্য, আমিনা নিজেকে প্রেসিডেন্ট ভবনের চার দেওয়ালে আবদ্ধ না রেখে নানারকম সমাজকল্যাণমূলক কাজকর্ম করে থাকেন। আমেরিকা-ব্রিটেনের মতো দেশেও তাঁর নামে নারী ও শিশুকল্যাণ মূলক প্রকল্প চলছে। এ ছাড়াওজেরুসালেম,ফিলিস্তিন,সিরিয়া,মিশর, রোহিঙ্গার মতো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক বিষয়ে তিনি অনন্য অবদান রেখে চলেছেন। 

এহেন মহীয়সী মহিলার সঙ্গে সাক্ষাতের পর আমির খান বলেন, তাঁর আতিথেয়তা, মানবতাবোধ এবং দুরদৃষ্টিতে আমি অভিভূত। উল্লেখ্য, নতুন সিনেমা ‘লাল সিং চাড্ডা’-র শুট্যিয়ের জন্যই তুরস্ক গিয়েছেন আমির। তুরস্কের ইস্তান্বুল,আদানা এবং নিগডে অঞ্চলে এর শ্যুটিং হবে। প্রথম দৃশ্যগ্রহণের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের জন্য আমিনাকে এদিন দাওয়াতও দেন বলিউডি অভিনেতা আমির। দাওয়াত কবুল করে আমিনা তাঁকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, ভাই চেষ্টা করবেন সিনেমা ও সিরিয়ালের মাধ্যমে ইসলামকে তুলে ধরতে। এক্ষেত্রে বিশ্বজুড়ে সাড়া জাগানো তুর্কি মেগাসিরিয়াল দিরিলিশ এরতুগরুলের উপমা দেন আমিনা। এই সাক্ষাৎকার নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে আমিরকে নিয়ে। অনেকেই ইসলামপন্থী দেশের ফার্স্ট লেডির সঙ্গে দেখা করাটা ভালো চোখে দেখছেন তারা। বিশেষ করে কট্টরবাদী হিন্দুরা আমিরের সাক্ষাৎকে দেশদ্রোহিতার তকমা দিতে চাইছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only