বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০

কেমোথেরাপি করতে এসে এক সপ্তাহ ধরে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফুটপাথে ঠাঁই মুর্শিদাবাদের বৃদ্ধের ? পড়ুন বিস্তারিত


 পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:লকডাউন পর্ব কোনওরকমে কেটে গেলেও ফুসফুসের ক্যান্সারের যন্ত্রণা অসহ্য হয়ে উঠেছিল। তাই আর অপেক্ষা না করে পয়লা আগস্ট মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা থেকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে কেমোথেরাপি করানোর আশায় ছুটে আসেন কায়ামৎ শেখ ( ৬০)। কায়ামৎ শেখের দেখভালের জন্য তার ছেলেও আসেন সঙ্গে। তাঁদের আশা ছিল শহরের হাসপাতালে অন্তত যথাযথ চিকিৎসাটুকু হবে। কিন্তু কলকাতায় এসে বাস্তব অভিজ্ঞতা হল অন্য।

কায়ামৎ শেখের ছেলে জানান, কিছুদিন যাবত তার বাবা ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত। তাই বকেয়া ছিল কেমোথেরাপি। পয়লা আগস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাঁদের পৌঁছতে বিকেল হয়ে যায়। তাই পরের দিনের জন্য তাদের অপেক্ষা করতে হয়। পরের দিন হাসপাতাল থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, আগে কোভিড টেস্ট করাতে হবে। তারপর অন্য কথা। সেই মতো কোভিড টেস্টের প্রক্রিয়া শুরু হয। হাসপাতাল থেকে বলা হয় ৫ আগস্ট কোভিড টেস্ট হবে। 

এরপরই তাঁরা ঠিক করেন, তাঁরা মুশিদাবাদ ফেরত যাবেন না। কারন বাবাকে বাসে নিয়ে আসতে খুব সমস্যা হয়েছে। দীর্ঘ বাসযাত্রায় যন্ত্রণায় কষ্ট পেয়েছেন তার বাবা।, তাই আবার ফেরত নেওয়ার বদলে তিন দিন হাসপাতালে কাটিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। সঙ্গে টাকাপয়সা প্রায় নেই। তাই লজ বা হোটেলে ভাড়া করা যায় নি । 5 তারিখ নমুনা সংগ্রহ করার পর শুরু হয় অপেক্ষা। কেটে যায় 6, 7, 8,9,10 তারিখ। 11 তারিখ অর্থাৎ মঙ্গলবার জানিয়ে দেওয়া হয়, আগের সংগ্রহ করা নমুনা খুঁজে পাওয়া যায় নি। আবার লালারস নেওয়া হবে। এদিন সকালে আবার সুপার স্পেশালিটি বিল্ডিং এ লালারস নমুনা দিয়ে আসেন বৃদ্ধ। এখন সেই টেস্টের রিপোর্ট কবে আসবে, এবার তার প্রতীক্ষা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only