বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০

শারজিল উসমানীর মুক্তির দাবিতে বিবৃতি বিশিষ্টজনেদের, কি লিখলেন তাঁরা? বিস্তারিত পড়ুন



জ্যোৎস্না বেগম 

প্রায় এক মাস অতিক্রান্ত হল আলিগড় জেলে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে  ফ্র্যাটারনিটি মুভমেন্টের সর্ব ভারতীয় সম্পাদক  তথা সিএএ-বিরোধী আন্দলনের অন্যতম মুখ শারজিল উসমানীকে। তাঁর মুক্তির দাবিতে সরব হয়েছেন দেশের বিভিন্ন সামাজিক ও ছাত্র সংগঠনের নেতৃত্ব স্থানীয় ব্যাক্তিত্ব সহ দেশের ৪১ বিশিষ্ট জন।

জানা গেছে, গত ৮ জুলাই উত্তরপ্রদেশ পুলিশ শারজিল উসমানীকে গ্রেফতার করে। সিজ করা হয় তাঁর ল্যাপটপ– বইপত্র। পাঁচজন সাধারণ পোশাক পরিহিত ব্যাক্তি তাঁকে তাঁর বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় বলে সংগঠন সূত্রে জানা গেছে। জানা গেছে, শারজিল উসমানীর নামে পাঁচটি মামলা রুজু করা হয়েছে। গত ১৫ ডিসেম্বর আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের মধ্যে যে সহিংসতা ঘটে তার জন্য তাঁকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। 

একটিযৌথ বিবৃতি জারি করে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের এই প্রাক্তনীর অবিলম্বে মুক্তির দাবিতে সরব হয়েছে বিভিন্ন সামাজিক ও মানবধিকার সংগঠন তথা বিভিন্ন পেশার সঙ্গে যুক্ত যেমন কবি, লেখক, সাংবাদিক,অধ্যাপক, গবেষক সহ দেশের একাধিক বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। তাঁদের মধ্যে আছেন বাম ছাত্র সংগঠন আইসা’র সভাপতি কয়াল্প্রীত কাউর, ইসলামিক ছাত্র সংগঠন এসআইও’র সভাপতি লাবিদ শাফি, ইউনাইটেড আগাইন্সট হেট-এর নাদিম খান, ফ্র্যাটারনিটি  মুভমেন্টের সভাপতি আনসার আবুবক্কার, বাপসা নেতা জিতেন্দ্র সুনা সহ একগুচ্ছ গুণীজনেরা।

যৌথ এই বিবৃতিতে বলা হয়, অন্যান্য সিএএ-বিরোধী নেতাদেরকে যেভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে তারই অংশ হিসাবে শারজিল উসমানীকে গ্রেফতার করা হয়। উক্ত বিবৃতি মারফত আরও  বলা হয়,বিশেষ করে জামিয়া মিল্লিয়া ইসলামিয়া এবং আলিগড়ের  ছাত্রনেতাদের  উপর আক্রমণের মাধ্যমে ক্ষমতাসীন সরকার আন্দোলনকারী  তরুণদেরকে দমিয়ে রাখার মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে। বিবৃতিতে শারজিল উসমানী সহ অন্যান্য সমস্ত রাজনৈতিক বন্দীদের অবিলম্বে, নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানানো হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only