বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০

আলিপুর চিড়িয়াখানায় হোডিং লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু, বিস্তারিত জানতে লিঙ্ক কিক্ল করুন


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: পূর্ণ লকডাউনে যখন স্তব্ধ শহর কলকাতা, এমন একটা সময়ে আলিপুর চিড়িয়াখানায় বিজ্ঞাপনের হোডিং লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল দুই শ্রমিকের। ঘটনায় আরও একজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় একবালপুরে সিএমআরআই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, মৃত দুজনের নাম তারিণী ঘোষ ও প্রদীপ দাস ভদ্র। যিনি আহত হয়েছেন তার নাম লিটন দাস। 

ঘটনায় ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, কেন পূর্ণ লকডাউন চলাকালীন চিড়িয়াখানা চত্বরের মধ্যে এ ধরনের কর্মকাণ্ড চলছিল? কিন্তু এখনও পর্যন্ত চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের তরফে এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করা হয়নি। 

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ কিভাবে জড়িয়ে আছে, কার নির্দেশে এমন একটা বৃষ্টিপাতের দিনে এই ধরনের ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করা হচ্ছিল তার অনুসন্ধান শুরু হয়েছে।

রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন। রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ঘটনাটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। এর যথাযথ তদন্ত প্রয়োজন। যারা মারা গেছে তাদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া উচিত। পরিবারগুলোর সদস্যদের কাউকে চাকরি দেওয়া উচিত।

কিভাবে ঘটনাটি ঘটলো? পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এদিন সকাল সাড়ে এগারোটার সময় চিড়িয়াখানার মধ্যে হাতির এনক্লোজারের সামনে বেসরকারি সংস্থার ১৫ জন শ্রমিক মিলে বিজ্ঞাপনের হোডিং লাগানোর কাজ করছিলেন। এমন সময় বিজ্ঞাপন হোডিং এর লোহার খুঁটিটিতে শর্ট সার্কিট হয়। ওই সময় ১৫ জন শ্রমিকের মধ্যে তিনজন শ্রমিক বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠ হন। ঘটনার পরই দ্রুত তিন জনকেই উদ্ধার করে সিএমআরআই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যার মধ্যে দু'জনের মৃত্যু হয়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only