বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০

এবার জাবরির জামাতা গ্রেফতার! কিন্তু কেন? জানতে বিস্তারিত পড়ুন


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: সউদি আরবের প্রাক্তন গোয়েন্দা প্রধান সাদ আল-জাবরিকে হত্যার জন্য কানাডায় কিলিং স্কোয়াড পাঠানো হয়েছিল বছর দুয়েক আগে। সম্প্রতি সে খবর ফাঁস হওয়ায় বিপাকে পড়েছে সউদি সরকার। কারণ, এক্ষেত্রেও নাটের গুরু সেই সউদি প্রিন্স বিন সালমান। তারপর জানা যায়, জাবরির এক ছেলে ও এক মেয়েকে মাঝরাতে ঘুম থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে কোনও অজ্ঞাত স্থানে লুকিয়ে রাখা হয়েছে বেশ কয়েকমাস হয়ে গেল। মার্চ থেকে আজও তাদের আতাপাতা জানে না জাবরি ও তাঁর পরিবার। এবার আরেক চাঞ্চল্যকর খবর ফাঁস হল। জানা গেল, জাবরির জামাতা সালিম আল-মুজাইনেকেও গ্রেফতার করেছে সউদি পুলিশ। 

উল্লেখ্য, গোয়েন্দা প্রধানের পাশাপাশি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন নাঈফের উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করেছেন জাবরি। ২১ জুন ২০১৭ নাঈফকে হটিয়ে মসনদে বসেন বর্তমান প্রিন্স তথা হবু সউদি বাদশাহ বিন সালমান। এদিকে জাবরি পরিবারের আশঙ্কা, ছেলে-মেয়ের পর এবার জামাতাকেও লাপাতা করে দিয়ে জাবরিকে দেশে ফিরতে বাধ্য করতে মানসিক চাপ দেওয়া হচ্ছে। যাতে তিনি জীবন বাজি রেখে সউদি ফেরেন। আর এটা হলে সাংবাদিক জামাল খাশোগির মতোই জাবরিকেও হত্যা করা হবে। 

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তান্বুলস্থিত সউদি কনসুলেটে ডেকে পাঠিয়ে জামাল খাশোগিকে হাত-পা-গলা কেটে টুকরো টুকরো করে হত্যা করেছিল সউদি প্রিন্সের পাঠানো সুপারি কিলারবাহিনী। তার অল্প কিছুদিন পরেই একইভাবে জাবরিকে খুনের উদ্দেশ্যে কানাডায় জল্লাদবাহিনী পাঠানো হয়। সম্প্রতি ওয়াশিংটন আদালতে এই মর্মে মামলা করেন জাবরির আইনজীবী। অভিযোগে তিনি বলেছেন,কানাডার টরন্টো বিমানবন্দরে নামার পর ঘাতকবাহিনীর আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় তাদেরকে সউদিতে ফেরত পাঠানো হয়। তাই তারা ২০১৭ থেকে কানাডায় আশ্রিত জাবরিকে হত্যা করতে পারেনি। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only