রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০২০

জম্মু-কাশ্মীরে ৩৬ ঘণ্টা গুলির লড়াই, নিহত ১০ জঙ্গি ও সেনা আধিকারিক ৩ জওয়ান, বিস্তারিত পড়ুন

পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ৩৬ ঘণ্টায় ১০ জঙ্গি ও নিরাপত্তা বাহিনীর ২ জওয়ান নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে, আজ রবিবার নৌশেরা সেক্টরে পাকিস্তানি বাহিনীর গুলিতে রাজিন্দার সিং নামে সেনাবাহিনীর এক জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার (জেসিও) নিহত হয়েছেন।  

আজ ভোরে শ্রীনগরের পান্থচকে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ৩ জঙ্গির মৃত্যু হয়। সংঘর্ষে বাবু রাম নামে পুলিশের এক সহকারী উপ-পরিদর্শক নিহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার প্রশান্ত শর্মা এক সেনা জওয়ান নিহত হন।

আজ শ্রীনগরের পান্থচকের কাছে পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফের যৌথ তল্লাশি দলের উপরে সন্ত্রাসীরা গুলিবর্ষণ করে। পরে নিরাপত্তা বাহিনী ওই এলাকা ঘিরে ফেলে অভিযান চালায়। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি গুলিবর্ষণ হলে ৩ জঙ্গি নিহত হয়। 

এরআগে গতকাল (শনিবার) পুলওয়ামাতে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ৩ জঙ্গি ও  প্রশান্ত শর্মা এক সেনা জওয়ান নিহত হন। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর ৫০  রাষ্ট্রীয় রাইফেলস, আধাসামরিক বাহিনী সিআরপিএফ ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের স্পেশাল অপারেশন গ্রুপ সমন্বিত যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়েছিল। 

একইভাবে গত শুক্রবারও সোপিয়ানে এক সংঘর্ষে ৪ জঙ্গি নিহত হয়। এভাবে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে ১০ জঙ্গি ও নিরাপত্তা বাহিনীর ২ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে।

আজ নৌশেরা সেক্টরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে পাকিস্তানি বাহিনী গুলিবর্ষণ শুরু করলে ভারতীয় সেনাবাহিনী পাল্টা গুলিবর্ষণ করে জবাব দিয়েছে। এ সময় পাক বাহিনীর গুলিতে সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা গুরুতরভাবে আহত হন। তাঁকে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই মারা যান। 

কর্মকর্তারা বলেন, পাকিস্তানি বাহিনী আজ ভোরে রাজৌরি জেলার নৌশেরা এলাকায় যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে। এ সময়ে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর, কলসিয়ান, খঞ্জর, ভবানী এলাকায় ছোট অস্ত্রের সাহায্যে গুলিবর্ষণ হয়। পাক বাহিনীকে পাল্টা কঠোর জবাব দেওয়ার সময়ে  সেনাবাহিনীর জুনিয়র কমিশনড অফিসার (জেসিও) প্রাণ হারিয়েছেন। তিনি কলসিয়ান সেক্টরে একটি ফরোয়ার্ড পোস্টে মোতায়েন ছিলেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only