রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০২০

সিএএ বিরোধীরা আটকে, কেন্দ্রের সাফাই নাকচ মানবাধিকার রক্ষীদের


পুবের কলম ওয়েব ডেস্কঃবিতর্কিত নাগরিকত্ব (সংশোধিত) আইন, ২০১৯-কে বিরোধিতা করায় ১১ জন মানবাধিকার ও সমাজকর্মীকে আটক করেছে কেন্দ্র সরকার। এ ব্যাপারে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার রক্ষার বিশেষ দল কার্যত অখুশি। কেন্দ্রের দাবি,আইন মেনেই ওই এগারো জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং এঁরা বিচারবিভাগের দ্বারস্থ হতে পারেন। কিন্তু সরকারের এই উত্তরে অধিকার কর্মীরা খুশি নন। দ্রুত বিচারের মাধ্যমে মামলা নিষ্পত্তি না করে আন্দোলনকারীদের যেভাবে আটকে রাখা হয়েছে সেই ব্যাপারে তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন। তাঁদের মতে, সরকার অত্যান্ত অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে সিএএ-বিরোধীদের সঙ্গে আচরণ করছে। এই এগারো জন মানবাধিকার রক্ষী হলেন মিরন হায়দার, গুলফিশা ফাতিমা, সফুরা জারগার, শিফা উর রেহমান,আসিফ ইকবাল তানহা,দেবাঙ্গ কালিতা, নাতাশা নারওয়াল, খালিদ সইফি,কাফিল খান,শারজিল ইমাম ও অখিল গগৈ। রাষ্ট্রসংঘের জেনেভা দফতরে এঁদের ব্যাপারে চিঠি পাঠানো হয়েছে। নাগরিক অধিকার কর্মী রবি নায়ার বলেছেন, ‘সাধারণ সত্যকেই সরকার অস্বীকার করেছে এবং খুবই দায়সারাভাবে জবাব দিয়েছে। এঁদের বিচার প্রক্রিয়া অত্যান্ত মন্থর গতিতে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে যেটা আসলে শাস্তিরই নামান্তর। দিন প্রতি ট্রায়াল হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু গোটা বিষয়টা সরকার অস্বীকার করছে। তারা চিন ও বেলারুসের মতো আচরণ করছে।’ খালিদ সইফিকে মারধর করা হয়েছে। অন্যান্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা চার্জ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত বিচার হলে মিথ্যাগুলি ধরা পড়ে যাবে যার উপর তাদের মামলা দাঁড়িয়ে আছে। এমনটাই মনে করছেন তিনি। জেনেভায় ইন্ডিয়ান মিশনকে ১১ জুন চিঠি পাঠিয়েছে রাষ্টÉসংঘের বিশেষ দল ও স্বতন্ত্র বিশেষজ্ঞরা। রবি নায়ার জানিয়েছেন– ভারতের বিরুদ্ধে অসন্তোষ জড়ো হচ্ছে। ভারতের মতো এত বড় দেশের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া ইউএনের পক্ষে সহজ নয়। কিন্তু বছরের পর বছর ধরে এই দেশের বিশ্বাসযোগ্যতা তলানিতে ঠেকছে। তার ফলে এটা এখন একটা জরুরি ইস্যু। সিএএ,এনআরসি,এনপিআর-এর বিরোধিতা করলেই বিজেপি সরকার আন্দোলনকারীদের দেশদ্রোহীতা আইন, ইউএপিএ আইন ও অন্যান্য ক্রিমিনাল আইনে ফাঁসিয়ে দিয়ে আটক করা হচ্ছে। ভয় দেখিয়ে মুখ বন্ধ করে দেওয়াই কেন্দ্রের লক্ষ্য। সেইসঙ্গে আন্দোলনকে দুর্বল করে দিতে চাইছে তারা। এই বিষয়গুলিকে ‘অভ্যান্তরীণ ব্যাপার’ বলে আন্তর্জাতিক সংস্থাকেও দূরে রাখতে তৎপর মোদি-অমিত জুটি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only