বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০

জামতারা গ্যাং-এর দুই সদস্য বীরভূম থেকে গ্রেফতার!কিভাবে হদিশ পেল দিল্লি সাইবার ক্রাইম পুলিশ? বিস্তারিত দেখুন



কৌশিক সালুই বীরভূম: অনলাইনে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে টাকা হাতানোর কুখ্যাত জামতারা গ্যাং এর দুই সহযোগী গ্রেফতার। দিল্লির সাইবার ক্রাইম পুলিশ ও পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের যৌথ অপারেশনে বীরভূম থেকে ধরা পড়ে তারা। বৃহস্পতিবার তাদের সিউড়ি আদালতে তোলা হলে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক। তাদেরকে দিল্লির রোহিনী আদালতে ফের তোলা হবে।

আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত ব্যক্তিরা হলেন রঞ্জিত দে। বাড়ি রাজনগর থানার মুক্তিপুর গ্রামে এবং অন্যজন হলেন প্রকাশ মন্ডল বাড়ি চন্দ্রপুর থানার বাঁশবুনি গ্রামে। দিল্লির জনৈক ব্যক্তির ৬৩ হাজার টাকার জালিয়াতি করার মামলাতে ওই দুইজন অভিযুক্ত।



ওই দুজনকে সিউড়ি় আদালতে তোলা হয় এবং দিল্লি সাইবার ক্রাইম পুলিশের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক।জানা গিয়েছে, জামতারা গ্যাং-এর সহযোগী হিসেবে কাজ করতো তারা। রঞ্জিতের একাউন্টে টাকা সরিয়ে ফেলত জামতারা গ্যাং-এর সদস্যরা। প্রকাশ রঞ্জিত এর মত অ্যাকাউন্ট হোল্ডার জোগাড় করতো।

প্রসঙ্গত টাকা-পয়সা লেনদেন সংক্রান্ত সাইবারক্রাইমের স্বর্গরাজ্য হলো ঝাড়খন্ড রাজ্যের জামতারা। পিছিয়ে পড়া এলাকা হলেও তাদের বর্তমান কর্মকাণ্ডতে দেশ জুড়ে আতঙ্কের ছায়া। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, মুম্বাই থেকে মিজোরাম সারাদেশেই চলে জামতারা গ্যাং এর প্রতারণা। আন্তর্জাতিক সাইবারক্রাইমের অন্যতম দুই পিঠ স্থান নাইজেরিয়া এবং রোমানিয়া এই দুই দেশের প্রতারকদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ পাওয়া গিয়েছে এই গ্যাং-এর। 

প্রথমদিকে এটিএম নাম্বার এবং ওটিপি হাতিয়ে নিয়ে জালিয়াতি করতো তারা। ক্রমশ পুলিশের সচেতনতা বার্তা সাধারণ মানুষকে সতর্ক করে তোলে। পরবর্তী সময়ে নতুন পন্থা অবলম্বন করে তারা। অনলাইনে খাদ্য সামগ্রী জামাকাপড় থেকে প্রসাধনী সামগ্রী এবং ভোগ্যপণ্য কেনাকাটা প্রভৃতি ক্ষেত্রে টাকা-পয়সা লেনদেনের সময় বা মোবাইলে ভুয়ো লিঙ্ক  পাঠায় তারা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only