শুক্রবার, ২৮ আগস্ট, ২০২০

প্রদেয় টাকা বাকি, বিশ্ব ভারতীতে ক্ষোভ রিসার্চ স্কলারদের

দেবশ্রী মজুমদার, শান্তিনিকেতন, ২৮ অগাস্ট: বিশ্ব ভারতীতে নন নেট ফেলোশিপ রিসার্চ স্কলাররা বিশ্ব ভারতী কে হীরক রাজার দেশ বলে ক্ষোভ উগড়ে দেন। ফেলোশিপের দাবিতে " অনাহারে নাহি খেদ, বেশি খেলে বাড়ে মেদ" ইত্যাদি প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে তাঁদের বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন সেন্ট্রাল অফিস থেকে কিছুটা দূরে। 

বিশ্ব ভারতীর পদার্থ বিদ্যা রিসার্চ স্কলার এবং জীব বিদ্যার স্কলার বিউটি সাহারা এদিন বিশ্ব ভারতী উপাচার্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, উপাচার্যের নন এক্যাডেমিক কাজে বেশি আগ্রহ। উনি পাঁচিল ঘেরা নিয়ে ব্যস্ত। আমরা একাডেমিক কাজে উনার সাথে এ্যাপয়েন্টমেন্ট নিয়ে দেখা করার সুযোগ পাই না। ২০১৬-১৭ সালের নন নেট ফেলোশিপ জুন মাস থেকে বন্ধ। ২০১৮ সালের স্কলাররা ২ বছর কোন টাকা পায় না। একইভাবে ২০১৯ সালের কোন স্কলার সেই টাকা পায় নি। এদিকে ফীজ জমার নোটিশ দিলেও, ফেলোশিপের নোটিশ নেই। এতদিন টিউশনি করে কাজ চলছিল আমাদের। কিন্তু করোনা আবহে অবস্থা খারাপ। দু'বছর হয়ে গেল। কোর্স শেষ। গতবছর ২১ সেপ্টেম্বর আমরা শতাধিক ছাত্র ছাত্রী অনশন কর্মসূচি নিয়েছিলাম। উপাচার্য অনশনের জায়গায় এসে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে যান। সেন্ট্রাল অফিসের সামনে নো ডিস্টার্ব জোন লিখে দেওয়া হয়েছে। আমরা সেখানে শান্তি পূর্ণ ভাবে আন্দোলন করতে পারবো না। আমরা তো বিশ্ব ভারতীর ছাত্র ছাত্রী। বহিরাগত নয়! আমরা কী সন্ত্রাসী?

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only