মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

পরিযায়ী শ্রমিক :কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বক্তব্য নিয়ে আক্রমণ অভিষেকের 'কবে এই অমানবিক সরকার শেষ হবে?'

 


পুবের কলম প্রতিবেদক:লককডাউনে পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যুর পরিসংখ্যান দিতে পারেনি কেন্দ্র। যা নিয়ে মোদী সরকারকে চাঁচাছোলা ভাষায় বিঁধলেন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কেন্দ্রীয় সরকারে ‘অমানবিক সরকার’ বলেও কটাক্ষ করেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। সোশ্যাল সাইট ট্যুইটারে প্রশ্ন তুলে এ দিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘সরকারের কোনও ধারণা নেই কত মানুষের চাকরি গিয়েছে, কত মানুষের জীবন গিয়েছে ! কবে এই অমানবিক সরকার শেষ হবে?’

উল্লেখ্য, দেশে কোভিডের জেরে আচমকাই লকডাউন ডেকে দিয়েছিল মোদি সরকার। আর তার জেরে সব থেকে বেশি সমস্যায় পড়েছিল দেশের নানা রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকেরা। সেই সময় থেকেই কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন মোদি সরকার এদের নিয়ে ছিঁটেফোঁটা মানবিকতা দেখায়নি। দিনের পর দিন ধরে রাস্তায় হেঁটে এরা পাড়ি জমিয়েছেন এক রাজ্য থেকে নিজ রাজ্যের পথে। অনেকেই সেই পথ পাড়ি দেওয়ার ক্লান্তি সহ্য করতে না পেরে মারা গিয়েছেন। অনেকেই আবার দুর্ঘটনার শিকারও হয়েছেন। বিজেপি শাসিত কোনও রাজ্য এইসব পরিযায়ীদের নিয়ে ছিঁটেফোঁটা মানবিকতা দেখায়নি। করেনি কোনও সাহায্যও। সারা দেশে প্রায় আড়াইশোর মতো পরিযায়ী শ্রমিক এইভাবে মারা গিয়েছেন। তাঁদের পরিবারগুলির প্রতি এখনও কেন্দ্র কোনও মানবিক পদক্ষেপ না নেওয়ায় এবার মোদি সরকারকে আক্রমণ শানলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, সোমবার সংসদে কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং মোদি সরকারের কাছ থেকে জানতে চেয়েছিলেন লকডাউনে মৃত পরিযায়ী শ্রমিকদের পরিবারগুলিকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে কেন্দ্র কিছু ভেবেছে কিনা। সেই প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ কুমার গাঙ্গোয়ার স্পষ্ট জানিয়ে দেন, মার্চ মাসে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর থেকে প্রায় এক কোটির মতো পরিযায়ী শ্রমিক নিজ রাজ্যে রওনা দিতে শুরু করেছিল। মাঝপথে কতজনের মৃত্যু হয়েছে সেই নিয়ে কোনও তথ্য নেই কেন্দ্রের কাছে। সেই কারণে কোনও ক্ষতিপূরণ দেওয়া যাবে না। কেন্দ্রের এই অবস্থান ঘোষিত হওয়ার পর পরই দেশ জুড়ে তীব্র নিন্দা শুরু হয়েছে। মোদি সরকার কতটা অমানবিক সেটাই এখন নগ্ন সত্য হয়ে সবার সামনে চলে এসেছে। বিরোধী শিবির থেকে শুরু করে সংবাদ মাধ্যম এই ইস্যুতে মোদি সরকারকে আক্রমণ করেছেন সবাই। সেই তালিকায় এবার নাম জুড়লো তৃণমূল সাংসদ তথা যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামও।

এদিন তিনি ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, কেন্দ্রের কাছে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কোনও তথ্য না থাকা কার্যত চূড়ান্ত দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয়। পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে যারা হারিয়ে গেলেন তাঁদের নিয়ে ছিঁটেফোঁটা উদগ্রীব নয় এই সরকার। সংসদে মন্ত্রী যে বক্তব্য রাখলেন সেই বক্তব্যে কিছু মিঠা বুলি ছাড়া আর কিছুই ছিল না। মোদি আপনাদের অমানবিক সরকার শেষ হবে?

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only