শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

গয়না বেচে উকিলের টাকা মেটাচ্ছেন অনিল আম্বানি!



নয়াদিল্লি, ২৬ সেপ্টেম্বরঃ কথায় আছে, ‘আজ রাজা কাল ফকির’! একসময়ের বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি এখন নাকি অত্যন্ত আর্থিক দুরাবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। আদালতে অন্ততঃ এমনটাই জানিয়েছেন তিনি। 


‘রিলায়েন্স কমিউনিকেশন’-এর কর্ণধার অনিল আম্বানির এখন সময়টা মোটেই ভালো যাচ্ছে না। অথচ, একসময় তিনি ছিলেন বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্যক্তি। কালের ফেরে এখন তাঁর দেউলিয়া অবস্থা। তাঁর সব সংস্থারই প্রায় ঝাঁপ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। রোজগারও কার্যত বন্ধ। পরিস্থিতি নাকি এতটাই প্রতিকূল যে, উকিলের খরচ জোগাড় করতেও নিজের সাধের গয়না বিক্রি করতে হচ্ছে তাঁকে। 


সম্প্রতি, ব্রিটেনের এক আদালতে এমনটাই জানিয়েছেন এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির ভাই অনিল আম্বানি। সূত্রের খবর, চিনের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্ক, ‘চায়না ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্ক’, ‘ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড কমার্সিয়াল ব্যাঙ্ক অব চায়না’ সহ একাধিক ব্যাঙ্ক দাবি করছে, আম্বানির সংস্থাকে তারা ঋণ বাবদ কয়েক হাজার কোটি টাকা দিয়েছে। ব্যক্তিগত গ্যারান্টির মাধ্যমেই নাকি এই ঋণগুলি নিয়েছেন অনিল আম্বানি। 


কিন্তু, অনিলের ব্যবসা ক্রমতাগত আর্থির ক্ষতির মুখে পড়তে থাকায় তিনি এই ব্যাংকগুলির ঋণ মেটাতে পারেননি। বাধ্য হয়ে ব্যাঙ্কগুলি একইসঙ্গে ব্রিটেনও ভারতের আদালতে অনিলের বিরুদ্ধে মামলা করে। ব্রিটেনের আদালত আম্বানিকে চিনের তিনটি ব্যাঙ্কের প্রায় ৫ হাজার ৪৪৮ কোটি টাকা ঋণ শোধ করার নির্দেশ দিয়েছে। 


যদিও জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে তাঁর আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ। ব্যাঙ্কগুলির ঋণ এখনই তাই তাঁর পক্ষে পরিশোধ করা সম্ভব নয়। অনিলের মতো এক সময়ের বিশ্বের ষষ্ঠ ধনী ব্যবসায়ীর মুখ থেকে এ কথা শুনে রীতিমতো বিস্ময়প্রকাশ করে আদালত। এরপরই আদালতের তরফে অনিলকে তাঁর সব সব সম্পত্তির হিসেবের একটা হলফনামা জমা দিতে বলা হয়।


জানা গিয়েছে, আদালতে অনিল আম্বানি নাকি এমনও বলেছেন, এখন তাঁর আর নাকি তেমন উল্লেখযোগ্য কোনও সম্পত্তি নেই। থাকার মধ্যে শুধুমাত্র একটি গাড়ি রয়েছে তাঁর। এমনকী নিজের খরচ চালানোর জন্য তাঁকে স্ত্রী ও সন্তানের উপর নির্ভর করতে হচ্ছে। একজন সাধারণ মানুষের মতোই তিনি জীবনযাপন করেন। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only