শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

খয়রাশোল গ্রাম পঞ্চায়েতে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার অভিযুক্তরা

 


কৌশিক সালুই, বীরভূম , ৫ ই সেপ্টেম্বর: বীরভূমের খয়রাশোল এর বাবুইজোর গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে হামলা বোমাবাজি ও ভাঙচুরের ঘটনায় কয়েকজন  দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃত ব্যাক্তিদের শনিবার দুবরাজপুর আদালতে তোলা হলে বিচারক পুলিশি হেফাজত মঞ্জুর করেন। এলাকায় পুলিশি টহল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে জানা গিয়েছে।



আদালত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে বাবুইজোর গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে গত শুক্রবার এর হামলার ঘটনায় ধৃত ব্যক্তিরা হলেন  রঞ্জিত গড়াই,  দারু বাউরী, শেখ মজনু,  শেখ সেলিম,  শেখ শাহজাহান,  শেখ বাবু হোসেন। ঘটনায় 23 জনের বিরুদ্ধে পঞ্চায়েত প্রধান লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।  ধৃতদের দুবরাজপুর আদালতে তোলা হলে পুলিশের পক্ষ থেকে 10 দিনের হেফাজত চাওয়া হয় বিচারকের কাছে। বিচারক 8 দিনের পুলিসি হেফাজত মঞ্জুর করেন।বাকি অভিযুক্তদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। এদিকে এই বোমাবাজি ও হামলার ঘটনায় মূল মাথা হিসেবে যাদের নাম উঠেছে তারা হলেন খয়রাশোল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য তথা শিক্ষক উজ্জল কাদেরী ও তার প্রধান প্রতিপক্ষ বাবুইজোর গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি আব্দুর রহমান । 



উজ্জ্বল কাদেরীকে সিউড়ি থানার পুলিশ নারকোটিক আইনে গ্রেপ্তার করেছে এবং আব্দুর রহমান ও তার এক সঙ্গী শেখ হামিদুল কে অস্ত্র আইনে রাজনগর থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ওই তিনজনকে সিউড়ি আদালতে তোলা হয়। উজ্জ্বল কাদেরীকে পাঁচ দিনের পুলিসি হেফাজত এবং আব্দুর রহমান ও তার সঙ্গীর চারদিনের পুলিসি হেফাজত মঞ্জুর করেন। দুবরাজপুর আদালতের সরকারি আইনজীবী রাজেন্দ্র প্রসাদ দে বলেন," খয়রাশোল ব্লকের বাবুইজোর গ্রাম পঞ্চায়েতের হামলার ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির 448, 323, 325, 326, 307, 379, 427, 34 ipc & 25/27 arms act, 3/4 ES act, 3 pdpp act(সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা) প্রভৃতি ধারায় মামলা হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে হেফাজত চাওয়া হয়েছিল বিচারক তা মঞ্জুর করেছেন"।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only