শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

একবালপ‍ুরে খ‍ুনের রহস্য উৎঘাটন!



রীতিমতো পরিকল্পনা করেই একবালপুরের ড . সুবীর চ্যাটার্জী রােডের বাড়িতে ঢুকে শুক্রবার নিজের বৌদি আকিদা খাতুনকে ( ৪৫ ) খুন করে এবং দুই ভাইজিকেও খুন করার চেষ্টা করে মূল অভিযুক্ত সুলতান আনসারী। শনিবার পুলিশ সূত্রে এই তথ্যই জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, মৃত আকিদা খাতুন ধর্মতলা টিপু সুলতান মসজিদের নায়েব-এ-ইমাম হারুন রশিদের স্ত্রী।  হারুন রশিদ সাহেব ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলেন না।  এই লকডাউন আবহে তিনি টিপু সুলতান মসজিদে নামাজ পড়াতেন। শনিবার এশার নামাজের পর মৃত আকিদা খাতুনের লাশ দাফন হয়।


এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, তিনজনকে খুন করার পর হায়দ্রাবাদ পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল ধৃত সুলতান আনসারির। সেই মত টিকিটের ব্যবস্থাও ছিল বলেই জানা গিয়েছে। যেহেতু চিৎকার চেচামেচির জন্য লোক দেখে ফেলেছিল। তাই পালিয়ে গেলে বড় সাজা হতে পারে বলে ভেবেছিল অভিযুক্ত। তাই সেই কথা ভেবে থানাতে আত্মসমর্পণ করার সিদ্ধান্ত নেয় সে। যাতে তার সাজা কিছুটা কম হয়।


উল্লেখ্য, একবালপুর থানার অধীন ড. সুবীর চ্যাটার্জী রােডে নিজের বহুতল বাড়িতে মঙ্গলবার দুপুরে আকিদা খাতুন ও তার দুই মেয়ের উপর হামলা চালায় মূল অভিযুক্ত সুলতান আনসারি। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only