মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ফিরে দেখা! প্রয়াত প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়ের জী‍বনের ইতিহাস



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ দিনের শেষেই ঘুমের দেশে পাড়ি জমালেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়। টানা ২২ দিন লড়াই শেষে নিয়তির কাছে হার মানতেই হল জীবনে হার না মানার লড়াইয়ে বহুবার জয়ী ভারতীয় রাজনীতির পিতামহ ভীষ্মকে। সোমবার সন্ধ্যা পৌনে ছয়টা নাগাদ দিল্লির সেনা হাসপাতালে গভীর কোমার মাঝেই মৃত্য‍ুর কোলে লুটিয়ে পড়লেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। মৃত্য‍ুকালে বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর আট মাস। রেখে গেলেন দুই পুত্র অভিজিৎ ম‍ুখোপাধ্যায় ও ইন্দ্রজিৎ ম‍ুখোপাধ্যায় এবং কন্যা শর্মিষ্ঠা ম‍ুখোপাধ্যায় সহ অসংখ্য অনুরাগীকে। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির অকালপ্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধি, তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশ ও বিদেশের বহু প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক নেতৃত্ব। 


লকডাউনে নিজেকে দিল্লির রাজাজি মার্গের সরকারি বাসভবনেই বন্দি করে রেখেছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। গত ৯ আগস্ট রাতে বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় চোট পান। পরের দিন অর্থাৎ ১০ আগস্ট সকালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয় দিল্লির সেনা হাসপাতালে। সেখানে নানা পরীক্ষায় মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বাঁধার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সাংক্রমণ ধরা পড়ে। ওই দিন রাতে জরুরি অস্ত্রোপচারে প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়ের মস্তিষ্কে জমাট বাঁধা রক্ত (ক্লট) বের করেন চিকিৎসকরা। কিন্তু শারীরিক পরিস্থিতি সংকটজনক হওয়ায় ভেন্টিলেশনে রাখা হয় তাঁকে। ভেন্টিলেশনে থাকাকালীন গভীর কোমায় চলে যান প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। সেইসঙ্গে ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। 


প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির জীবনরক্ষার চেষ্টায় কোনও ত্র‍ুটি করেননি দিল্লির সেনা হাসপাতালের চিকিৎসকরা। মাঝে সামাজিক মাধ্যমে প্রণবের মৃত্য‍ুর খবরও দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছিল। ভারতীয় রাজনীতির অন্যতম পিতামহ ভীষ্ম যাতে মৃত্য‍ুকে জয় করতে পারেন তার জন্য বিভিন্ন প্রান্তে বিশেষ পুজোপাঠের আয়োজনও করা হয়েছিল। উদ্বিগ্ন গোটা দেশ প্রার্থনা করেছিল, সুস্থ হয়ে ফিরে আসুন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু সেই প্রার্থনা মঞ্জুর করেননি সর্বশক্তিমান উপরওয়ালা। 


১৯৩৫ সালের ১১ ডিসেম্বর অধুনা বীরভূমের মিরাটিতে জন্ম প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়ের। বাবা কামদা কিঙ্কর ম‍ুখোপাধ্যায় ছিলেন কংগ্রেস নেতা। ফলে রাজনীতি ছিল তাঁর রক্তে। প্রথমে সিউড়ি বিদ্যাসাগর কলেজ থেকে স্নাতক হয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও ইতিহাসে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়। তারপর তিনি হাওড়ার বাঁকড়া ইসলামিয়া হাইস্কুলে শিক্ষকতার পেশায় যোগ দেন। ১৯৬৩ সালে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিদ্যানগর কলেজে অধ্যাপনা শুরু করেন। রাজনীতিতেও হাতেখড়ি হয় সেই সময়ে।

  

বেটেখ‍াটো চেহারার ধুতি-পাঞ্জাবিতে আদ্যোপান্ত প্রণবের মতো অমূল্য রত্নকে চিনতে ভুল করেননি তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি। ১৯৬৯ সালে কংগ্রেসের হয়ে প্রথম রাজ্যসভায় পা রাখেন প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়। ১৯৭৩ সালে ইন্দিরা মন্ত্রিসভায় শিল্পোন্নয়ন দফতরের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। ১৯৮২ সালে দেশের অর্থমন্ত্রীর মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব প্রিয় প্রণবের কাঁধে দিয়েছিলেন জওহরলাল নেহরুর কন্যা। ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত যথেষ্ট দক্ষতার সঙ্গেই অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলান।


কিন্তু ১৯৮৪ সালে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধির নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পরে বিপাকে পড়ে যান প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধির সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় কংগ্রেস ছেড়ে ১৯৮৬ সালে রাষ্ট্রিয় সমাজবাদী কংগ্রেস নামে নতুন দল গড়েন তিনি। ১৯৮৭ সালের বিধানসভা ভোটে অবশ্য ম‍ুখ থুবড়ে পড়ে রাষ্ট্রীয় সমাজবাদী কংগ্রেস। ১৯৮৯ সালে রাজীব গান্ধির সঙ্গে দূরত্ব ঘুচিয়ে কংগ্রেসেই ফিরে যান প্রণব। 


১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী হন পি ভি নরসিমা রাও। যোজনা কমিশনের ডেপুটি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়। ১৯৯৫ সালে বিদেশ মন্ত্রী হন। ২০০৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে জঙ্গিপুর থেকে প্রথমবারের মতো লোকসভার সাংসদ হন। কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধি বিশ্বস্ত প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়কে লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতার দায়িত্ব দেন। টানা ১০ বছর প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহর আমলে তিনি বিদেশ, অর্থ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্ব সামলান। ২০১২ রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচিত হন। 


২০১৭ সালে পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে রাজাজি মার্গের সরকারি বাসভবন তাঁর স্থায়ী ঠিকানা হয়ে ওঠে। স্ত্রী শুভ্রা ম‍ুখোপাধ্যায়ের মৃত্য‍ুর পরেই নিঃসঙ্গ হয়ে পড়েছিলেন। বই পড়ে আর বিভিন্ন সেমিনারে যোগ দিয়েই সময় কাটত তাঁর। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়ের সক্রিয় রাজনীতিতে ফেরার জল্পনা শুরু হয়েছিল। কিন্তু সেই জল্পনা জল্পনাতেই থেকে গিয়েছে। সব জল্পনা, বিতর্ককে পিছনে ফেলে অচিনপুরে পাড়ি জমালেন মিরাটির ‘পল্টু’ ওরফে প্রণব ম‍ুখোপাধ্যায়।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only