সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ডিয়ার লটারির দৌলতে কোটিপতি প্যাকেট দুধের সেলসম্যান



পুবের কলম প্রতিবেদক‌:­ সংসারে আর্থিক সচ্ছলতা ছিল না। তার থেকে মুক্তি পেতে মাঝেমধ্যেই ডিয়ার লটারির টিকিট কাটতেন। তা বলে রাতারাতি প্রথম পুরস্কার জিতে কোটিপতি হয়ে যাবেন এমনটা স্বপ্নেও ভাবেননি হাওড়ার ডোমজুড়ের উত্তর ঝাপড়দাহ গাঙ্গুলিপাড়ার বাসিন্দা চল্লিশ বছর বয়সি শক্তি দাস। আর এই ডিয়ার লটারির দৌলতে শক্তিবাবু এখন রাতারাতি হিরো হয়ে উঠেছেন এলাকায় এবং কর্মক্ষেত্রে। 


শক্তিবাবুর ইচ্ছে তিনি লটারিতে পাওয়া টাকা ব্যাঙ্কে রেখে দেবেন। স্বচ্ছলভাবে জীবন কাটাবেন। শক্তিবাবু জানিয়েছেন, তিনি অবিবাহিত। তাঁর রোজগার মাসে মাত্র ৭ হাজার টাকা। বাড়িতে দাদা ও মা আছে। তিনি একটি সংস্থার হয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্যাকেটের দুধ বিক্রি করেন। সেই সূত্রেই কাজের ফাঁকে ফাঁকে লটারির দোকানে ঢুঁ মারতেন তিনি। কখনও ৫০, কখনও ১০০ টাকার ডিয়ার লটারির টিকিট কিনতেন। সেই অভ্যেসেই গত ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুরে ৬০ টাকা দিয়ে ডিয়ার লটারির ১০টি টিকিট কেনেন শক্তিবাবু।


 লটারির ফল ঘোষণা ছিল ওই দিনই রাত আটটায়। যথারীতি লটারির দোকানে গিয়ে টিকিটের নম্বর মিলিয়ে চক্ষু চড়ক গাছ শক্তিবাবুর। তাঁর টিকিট যে একেবারে এক কোটি টাকা জিতেছে, তা তিনি স্বপ্নেও ভাবেননি। প্রথমদিকে নিজের চোখকেও বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তিনি। পরে কিছুটা ধাতস্থ হন তিনি। ততক্ষণে এলাকায় রটে যায় তাঁর ডিয়ার লটারিতে ১ কোটি টাকা জেতার কথা। এই পরিস্থিতিতে তিনি বাড়ি ফিরে যান। সুরক্ষার কথা ভেবে মাঝে একদিন বাড়িতেই ছিলেন। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only