সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

প্রসুতি মৃত্যুর কারণে নার্সিংহোম ভাঙচুর

 


দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট: চিকিৎসার গাফিলতির অভিযোগে এক বেসরকারি নার্সিংহোম ভাঙচুর। রোগীর পরিবারের অভিযোগ সঠিক পরিষেবা না পেয়েই তাদের প্রসুতি মারা গেছে। তারপর রোগীর আত্মীয় পরিজনের সাথে এলাকার মানুষ নার্সিংহোম ভাঙচুর করে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রামপুরহাট থানার পুলিশ।  এ ব্যাপারে নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের তরফে থানায় অভিযোগ জানানো হবে বলে জানা গেছে। 


জানা গেছে, ওই মৃত রোগীর নাম ইয়াসমিনা বিবি (২২)। বাড়ি আয়াস পঞ্চায়েতের অধীন পানিসাইল গ্রাম। আশা নার্সিংহোমে তাঁর সিজার হয় ৩ তারিখ। রোগীর পরিবারের অভিযোগ, প্রসুতির গায়ে বিজি বিজি ঘামাচির মত বের হয়। সেটা জানানোর পর চিকিৎসা না করে করোনা টেস্টের জন্য রামপুরহাট হাসপাতালে করোনা টেস্ট করতে বলা হয়।


যদিও ওই নার্সিংহোমের মালিক ও চিকিৎসক অশোক চট্টোপাধ্যায় সংবাদ মাধ্যমকে জানান, ওই রোগীকে ছেড়ে দেওয়া হয়নি। তার চিকিৎসা করা হয়েছে। যেহেতু নার্সিংহোমে কোভিড পরীক্ষা হয় না,  সেই কারণে রামপুরহাট হাসপাতালে টেস্টের পরামর্শ দেওয়া হয়। মাঝে তারা চর্ম রোগ বিশেষজ্ঞ দেখায়। কিন্তু কোন ভাবেই আমাদের পরামর্শ মোতাবেক রামপুরহাট হাসপাতালে তারা যাননি।


বাড়িতে সময় নষ্ট করেন। এরপর ফের নার্সিংহোমে আসেন এবং পরিস্থিতি অনুযায়ী তাঁদের বর্ধমানে যেতে বলা হয়। আজ সকালে মারা যায় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে। তার পর দেহ এনে রামপুরহাটের ওই  নার্সিংহোমে ভাঙচুর করে। রোগীর পরিবারের সাথে আসা একজন এলাকাবাসীর দাবি, নার্সিং হোমের চিকিৎসকের ভয়ে রামপুরহাটে কোন চিকিৎসক ওই প্রসুতিকে দেখে নি। যদিও তারা এই মর্মে থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করেনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only