শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

দক্ষতা উন্নয়নের জন্য অনলাইন পাঠক্রম


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক:দক্ষতা উন্নয়ন এবং শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রকের নির্দেশে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক কোভিড-১৯ লকডাউন পরবর্তী সময়ে শিল্পোদ্যোগ ও দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান সহ শিল্প প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন নিগমের আওতায় অথবা রাজ্য দক্ষতা উন্নয়ন মিশন বা অন্যান্য কেন্দ্রীয়/রাজ্য  মন্ত্রক/দপ্তরের অধীনে  স্বল্প মেয়াদী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, শিল্পোদ্যোগ ও ক্ষুদ্র ব্যবসায় উন্নয়নের জন্য জাতীয় প্রতিষ্ঠান, ভারতীয় শিল্পোদ্যোগ প্রতিষ্ঠান এবং তাদের প্রশিক্ষণ অংশীদারদের জন্য  দক্ষতা উন্নয়ন মূলক কর্মসূচি চালিয়ে যেতে গত ৮ই সেপ্টেম্বর একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর জারি করে। মূলত কোভিড-১৯ সংক্রমণ ছড়িয়ে পরা রোধ করতে এই প্রতিষ্ঠানগুলিতে সতকর্তামূলক কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে তার রূপরেখা তুলে ধরা হয়েছে এই নির্দেশের মধ্যে দিয়ে।


    কোভিড-১৯ মহামারী কর্মক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। এরফলে কাজের গতি প্রকৃতির পরিবর্তন হয়েছে এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার গুরুত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। এরজন্য দক্ষতা/ পুনঃদক্ষতা ও দক্ষতা উন্নয়নে গুরুত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। স্বাস্থ্য ক্ষেত্র সহ টেলি-মেডিসিন, স্যানিটাইজেশনের মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে পাঠক্রমে দক্ষতা উন্নয়নে প্রয়োজনীয়তা লক্ষ্য করা গেছে।


    মন্ত্রক 'ভারত স্কিল' নামে অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে ২৯টি জনপ্রিয় পাঠক্রমের জন্য ই-লার্নিং ভিডিও এবং কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রকল্পের আওতায় ১৩৭টি বিষয়ের জন্য কোয়েশ্চেন ব্যাঙ্ক তৈরি করেছে। এমনকি অন্যান্য জাতীয় দক্ষতা যোগ্যতা পরিকাঠামো সহ আইটিআইয়ের ছাত্র  ছাত্রীদের  জন্য অনলাইন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। লকডাউনের সময় ৯ লক্ষ ৩৮ হাজার ৮৫১ জন সুবিধাভোগী এই পাঠক্রমে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। এছাড়াও ভারত স্কিল মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে ১ লক্ষ ৩১ হাজার ২৪১ জন প্রশিক্ষণ প্রার্থী প্রশিক্ষণের সুবিধা গ্রহণ করেছেন। একইভাবে মন্ত্রকের আওতাধীন স্বশাসিত সংস্থা ন্যাশনাল ইন্সট্রাকশনাল মিডিয়া ইন্সটিটিউটের মাধ্যমে ৩ হাজার ৮০টি অনলাইন ক্লাস সম্পন্ন হয়েছে। এখানে ১৬ লক্ষ ৫৫ হাজার ৯৫৩ জন সুবিধাভোগী প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। পাশাপাশি মন্ত্রকের আওতাধীন ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ ট্রেনিং-এর শিল্প সহযোগী সংস্থাগুলির সাহায্যে কোয়েস্ট অ্যালায়েন্স, আইবিএম, ন্যাশকম- মাইক্রোসফ্ট এবং সিসকোর মতো সংস্থা থেকে ১ লক্ষ ৮৪ হাজার ২৯৬ জন অনলাইন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রকল্পে ৩৫টি অনলাইন ক্লাসে ১৬ হাজার ৬৭ জন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। সারা দেশে ৩৩টি জাতীয় দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে ৩৪টি ক্রাফ্ট ইন্সট্রাকটর ট্রেনিং স্কিম চলছে। জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন নিগমের দক্ষতা ইকো সিস্টেমের আওতায় বহু সংখ্যায় স্বল্প মেয়াদী প্রশিক্ষণ চালু করা হয়েছে। ই-স্কিল ইন্ডিয়া নামে একটি ই-লার্নিং পোর্টালে এই প্রশিক্ষণ পর্ব চলছে। মূলত দক্ষতা উন্নয়নে জোর দিতে এবং প্রযুক্তি ব্যবহারে উপযোগী করে তুলতে ভার্চুয়াল মাধ্যমে এই ধরণের প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।রাজ্যসভায় লিখিত জবাবে এই তথ্য দিয়েছেন দক্ষতা উন্নয়ন ও শিল্পোদ্যোগ প্রতিমন্ত্রী শ্রী আর কে সিং

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only