রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

প্রধানমন্ত্রীর বাংলা সংস্কৃতির প্রতি অশ্রদ্ধা বেরিয়ে পড়েছে, প‍ুজোর মধ্যে নেট পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভ অভিষেকের



করোনা আবহে ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সর্বভারতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষা নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত সর্বজন বিদিত। মতবিরোধের জল গড়িয়েছিল শেষ পর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ আদালত পর্যন্ত। সেই রেশ কাটতে না কাটতে আবারও আবারও সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হল। দুর্গা পুজোর মধ্যেই নেট পরীক্ষা পড়ায় এবার এই নিয়ে সবর হল তৃণমূল কংগ্রেস। কিছুদিন আগে পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় গেরুয়া শিবির প্রচার শুরু করেছিল, রাজ্য সরকার নাকি দুর্গাপুজো হতে দিতে চায়।


শেষ পর্যন্ত রাজ্য সরকারকে বিবৃতি দিয়ে বলতে হয়, নেট দুনিয়ায় এই প্রচারের কোনও ভিত্তি নেই। এই অবস্থায় হিন্দু ভোট ব্যাঙ্কের নজর কাড়তে সফল বিজেপি এবার তৃণমূল কংগ্রেসের হাতে নতুন অস্ত্র তুলে দিল। রবিবার এই মোক্ষম অস্ত্র নিয়ে মোদি সরকারের বিরোধিতায় অবতীর্ণ হলেন তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। 


নেট পরীক্ষা নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থান নিয়ে তিনি সরাসরি আক্রমণ শালানেন মোদি সরকারের উদ্দেশে। তাঁর প্রশ্ন কেন পুজোর মধ্যে নেওয়া হবে পরীক্ষা? তৃণমূলসূত্রে এও জানা গিয়েছে তাঁদের এই প্রতিবাদকে লিপিবদ্ধ করতে এই বিষয়টি নিয়ে রাজ্যসভায় নোটিসও দেওয়া হয়েছে।


ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সির তরফে জানানো হয়েছে চলতি বছর নেট পরীক্ষা শুরু হতে চলেছে ১ অক্টোবর। তা শেষ হচ্ছে ২৩ অক্টোবর। পরীক্ষা রয়েছে ২১ অক্টোবর পঞ্চমী, ২২ অক্টোবর ষষ্ঠী এবং ২৩ অক্টোবর সপ্তমীতেও। নেট-এর বাংলা পরীক্ষা নেওয়া হবে ষষ্ঠীর দিনে। এ নিয়ে চূড়ান্ত বিরোধিতায় সরব তৃণমূল। 


পুজোর মধ্যেই নেট পড়ায় কেন্দ্রকে তোপ দেগেছেন ডায়মন্ড হারবারের তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । তিনি ট্যুইটে লেখেন, “পুজোর পঞ্চমী, ষষ্ঠী ও সপ্তমীর দিন নেট পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। তার মাধ্যমে পড়ুয়াদের সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অবজ্ঞা এবং বাংলার সংস্কৃতি সম্পর্কে অশ্রদ্ধা বেরিয়ে পড়েছে।”


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only