রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

রামপুরহাট "এ আর ডিপি" ব্যাঙ্ক দাদন ও ঋণ আদায়ে রাজ্যে প্রথম



দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট: রামপুরহাট কোঅপারেটিভ এগ্রিকালচার এণ্ড রুরাল ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক অর্থ দাদন ও ঋণ আদায়ে রাজ্যে তাদের মোট ২৬টি ব্যাঙ্কের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করে।


এই ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান ত্রিদিব ভট্টাচার্য বলেন, গ্রামের প্রান্তিক চাষীদের কৃষি ঋণ, অকৃষি ঋণ, সাবসিডির মাধ্যমে প্রকল্প ঋণ, গৃহ ঋণ সহ ব্যাবসায়ী ঋণ মিলে ২৫ কোটির বেশি কিছু দাদন হয়েছে এই অর্থ বর্ষে। যা রাজ্যের নিরিখে বা এই ব্যাঙ্কের ৪০ বছরের ইতিহাসে নজিরবিহীন। এছাড়াও ঋণ আদায়ের ক্ষেত্রে ৭৭.২৪ শতাংশ। এই ব্যাঙ্ক শুরু হওয়ার সময় এই আদায় ছিল ৫৬.২৪ শতাংশ। তার পরের বছর ছিল ৭৩ শতাংশ এবং বর্তমান অর্থবছরে বেড়ে দাঁড়ায় ৭৭.২৪ শতাংশ। 


মূলতঃ রামপুরহাট মহকুমার ৮ টি ব্লক ও ২টি শহরের ১০ হাজারের বেশি ঋণগ্রহীতা এই পরিষেবা পেয়ে থাকে।  তিনি বলেন, এস আর ডি এর চেয়ারম্যান অনুব্রত মণ্ডলের প্রচেষ্টায় ৬ লক্ষ অনুদানে এই ব্যাঙ্কের পরিকাঠামো উন্নয়ন ঘটেছে। এছাড়াও তাঁর সুপারিশে মুখ্যমন্ত্রী ৫ কোটি উজ্জ্বীবিত অর্থ মঞ্জুর করেছেন। যা বিভিন্ন দফায় পাওয়া যাবে। এই ব্যাঙ্ক আমানত বৃদ্ধির লক্ষ্যে রামপুরহাট ও তারাপীঠে "ডেলি কালেকশন" স্কিম চালু করতে চলেছে। 


জানা গেছে, রামপুরহাট, নলহাটি ও মুরারই, মল্লারপুর প্রধান শাখা এবং রামপুরহাট এই ব্যাঙ্কের প্রধান কার্যালয়। লোহাপুর, কোটাসুর এই দুটি হল সাব অফিস।  এই ব্যাঙ্কের মোট ১৬ জন ডিরেক্টর ও ৪৬ জন ডেলিগেটস। ত্রিদিব বাবু জানান, ই পি এফের মাধ্যমে ব্যাঙ্কের কর্মীরা পেনশন ও প্রভিডেন্ট ফান্ডের সুবিধা পাবেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only