শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ম‍ুসলিম বিদ্বষ ‍প্রচার করায় ফেসব‍ুক, ইনস্টাগ্রাম থেকে নিষিদ্ধ তেলেঙ্গানার বিধায়ক টি রাজা সিং



পুবের কলম, নয়াদিল্লিঃ জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক মতামত প্রকাশের মুক্তমঞ্চ হিসেবেই পরিচিত ছিল। কিন্তু সম্প্রতি অভিযোগ উঠেছে, ফেসবুক তার ঘৃণা বিরোধী নীতি অনুযায়ী হিন্দুত্ববাদী ও বিজেপির সদস্য সমর্থকদের পোস্ট মুছে দেয়নি। বরঞ্চ প্রশ্রয় দিয়েছে। এ নিয়ে বিরোধীরা ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে। সমালোচনার ম‍ুখে পড়ে বৃহস্পতিবার ফেসবুক থেকে নিষিদ্ধ করা হল তেলেঙ্গানার বিধায়ক টি রাজা সিংকে। 


ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে ঘৃণা ছড়ানো পোস্ট শেয়ার করার জন্য তার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে গত এক বছর ধরে ইনস্টাগ্রামে তার কোনও অ্যাকাউন্ট নেই বলে দাবি করেছে বিধায়ক সিং। ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে তাঁর অ্যাকাউন্টটি সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলেও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। রাজা সিংয়ের দাবি, ২০১৯-এর এপ্রিল থেকে তার কোনও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই এবং যেটি ব্যান করা হয়েছে সেটি তার অনুগামীরা বানিয়েছে বলে তিনি দাবি করেছেন। 


আমেরিকার ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে ফেসবুকের পাবলিক পলিসি নিয়ে বৈষম্যের প্রতিবেদনটি প্রকাশ হবার পরেই কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা নড়েচড়ে বসে। সেখানেই রাজা সিংয়ের উদাহরণ দিয়ে জার্নালটি জানিয়েছিল যে বিজেপির ঘৃণা ছড়ানো বক্তব্য ফেসবুক সমর্থন করে। তাদের নীতি অনুযায়ী সেগুলো মুছে দেয় না কিংবা তাদেরকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে না। ভারতে ফেসবুকের পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাসকেও অভিযুক্ত করা হয় মুসলিম বিদ্বেষের জন্য। তিনি সংঘ ঘনিষ্ঠ বলে মনে করছে ওয়াকিফহাল মহল। তার জন্যই সংঘ সমর্থকরা বিদ্বেষমূলক পোস্ট করেও পার পেয়ে গিয়েছে। এ নিয়ে দেশ এবং বিদেশে প্রবল সমালোচনা শুরু হয়। 


এরই প্রেক্ষিতে ফেসবুক থেকে রাজা সিংকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত। তেলেঙ্গানায় বিজেপির একমাত্র বিধায়ক সিং মুসলিম বিরোধী বক্তব্যের জন্য বিতর্কিত। এই বিজেপি নেতা দাবি করেছিলেন, মুসলিম রোহিঙ্গাদের গুলি করে মারা উচিত। তিনি আরও বলেছিলেন, ভারতের মুসলিমরা বিশ্বাসঘাতক। দেশের মসজিদগুলোকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার কথাও তার ফেসবুক পোস্টে উল্লেখ করেছেন। এতকিছুর পরও আঁখি দাস ফেসবুকের কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী কোনও ব্যবস্থা নেয়নি তার বিরুদ্ধে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only