সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নিখোঁজ থাকার পর আমবাগান থেকে পার্শ্ব শিক্ষকের দেহ উদ্ধার



পুবের কলম প্রতিবেদক, বসিরহাটঃ  নিখোঁজ থাকার পর আমবাগান থেকে পার্শ্ব শিক্ষকের দেহ উদ্ধার হল। বসিরহাট মহকুমার বাদুড়িয়া থানার বেলগড়িয়া এলাকার ঘটনা। বছর ৫০ এর উজ্জ্বল দাস কাটিয়াহাট হাইস্কুলের পার্শ্বশিক্ষক ছিলেন। রবিবার সকালে কাটিয়াহাট পুঁড়ো এলাকায় আত্মীয়র বাড়িতে যাওয়ার জন্য বেরিয়েছিলেন।  বাড়ি থেকে বেরোনোর পরে তারা আর খোঁজ পাওয়া যায়নি।  


সোমবার দুপুরবেলায় কাটিয়াহাট  পুঁড়ো রাস্তার ধারের বেলগড়িয়ার এলাকার বশির মিয়ার আমবাগান থেকে তার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। মৃত শিক্ষকের বাড়ি আটুরিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। আত্মহত্যা না খুন, তদন্ত শুরু করেছে বাদুড়িয়া থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বসিরহাট জেলা হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ। 


মৃত শিক্ষকের স্ত্রী রুবি দাসের  দাবি, বেশ কিছুদিন ধরে হতাশায় ভুগছিলেন। কারণ তিনি বেশ কয়েক লক্ষ টাকা একজনকে ধার দিয়েছিলেন। পরিবারের অন্য লোকের কাজের জন্য। কিন্তু সেই টাকা নিয়ে তাঁর সঙ্গে বেশ কয়েকদিন ধরে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে  জনৈক ব্যক্তি। তাকে মোবাইল ফোনে একাধিকবার হুমকি ভয় দেখানো হয়েছে বলে দাবি পরিবারের। তাহলে কি তারাই পরিকল্পনা করে শিক্ষক খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছে না ঋণের অনাদায়ে আত্মহত্যা করেছে। 


পুরোটাই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। শিক্ষকের মোবাইল ফোন কললিস্ট পরীক্ষা দেখছে পুলিশ। এর পিছনে কি কারন আছে আত্মহত্যা না খুন সবদিক তদন্ত শুরু করেছে বাদুড়িয়া থানার পুলিশ। পার্শ্বশিক্ষক মৃত্যুর ঘটনায় গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ।মৃতের পরিবার সঠিক তদন্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। পরিবারের তরফ থেকে নির্দিষ্টভাবে কারো বিরুদ্ধে এখনও খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only