শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জেলে ৭২ ঘণ্টা জল পর্যন্ত খেতে দেওয়া হয়নি‌: কাফিল খান



পুবের কলম, জয়পুরঃ ইলাহাবাদ হাইকোর্টের নির্দেশে বুধবার রাতে জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন উত্তরপ্রদেশের চিকিৎসক ডা. কাফিল খান। যদিও প্রাণনাশের আশঙ্কায় নিজের রাজ্য উত্তরপ্রদেশে ফিরে না গিয়ে কংগ্রেস শাসিত রাজস্থানের জয়পুরে আপাতত ঠাঁই নিয়েছেন তিনি ও তাঁর পরিবার। বৃহস্পতিবার জয়পুরে সাংবাদিকদের ম‍ুখোম‍ুখি হয়ে কাফিল বলেন, রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় যে গাফিলতি রয়েছে তা ফাঁস করে দিয়েছিলে বলেই তাঁকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়। জেলে পোরা হয়। এমনকী গ্রেফতার হওয়ার পর ৭২ ঘণ্টা জল পর্যন্ত খেতে দেওয়া হয়নি। 


কাফিল আরও বলেন, তিনি উত্তপ্রদেশের ম‍ুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে বলবেন তাঁর সরকারি হাসপাতালের চাকরি ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। আর তা না হলে একজন সমাজকর্মী হিসেবে তিনি অসমের বন্যাবিধ্বস্ত এলাকায় মেডিক্যাল ক্যাম্প করবেন। বন্যদুর্গতদের সেবা করবেন। কাফিলের কথায়, ‘আমি খ‍ুব সাধারণ জীবনযাপন করছিলাম। অক্সিজেনের অভাবে বিআরডি মেডিক্যাল কলেজে শিশুমৃত্য‍ুর ঘটনায় আমি স্বাস্থ্য ব্যবস্থার গাফিলতি ফাঁস করার চেষ্টা করেছিলাম। এটা আমাদের ম‍ুখ্যমন্ত্রী ভালো চোখে দেখেননি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা কেস দেওয়া হয়েছিল এবং আমাকে জেলে পাঠানো হয়েছিল।’ 


কাফিলের চাঞ্চল্যকর অভিযোগ, ‘উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বিশেষ টাস্কফোর্স (এসটিএফ) আমাকে হেফাজতে নেওয়ার পর বির‍‍ূপ প্রশ্ন করেছিল। আমার বিরুদ্ধে তিন মাসের এনএসএ (জাতীয় সুরক্ষা আইন) প্রয়োগ করা হয়েছিল। তিন মাস পর তার মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ানো হয়েছিল। হেফাজতে নেওয়ার পর তিনদিন আমাকে জল পর্যন্ত খেতে দেওয়া হয়নি। এসটিএফ হেফাজতে নেওয়ার পর আমার উপর শারীরিক নিগ্রহ করেছিল। বির‍ূপ প্রশ্ন করেছিল--- আমি সরকার ফেলতে জাপানে গিয়েছিলাম কিন?’


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only