রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সাফল্যের পথ দেখাচ্ছে ভারত! বাঁদরের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগে আশাতীত ফল



পুবের কলম‌, পুণেঃ করোনা আতঙ্কে এতদিন প্রধান ভরসার স্থল ছিল যে অক্সফোর্ডের অ্যাস্টাজেনেকার কোভিশিন্ড ভ্যাকসিন, তা এখন অনিশ্চয়তার ম‍ুখে। একজন স্বেচ্ছাসেবীর নার্ভের সমস্যা দেখা দিয়েছে এই ভ্যাকসিন নিয়ে। এর পর পরই আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে ওই ভ্যাকসিনের মান শরীরে প্রয়োগ-পরীক্ষা। এখন নতুন করে আশার আলো দেখাচ্ছে ভারতই। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি ভারতের ‘কো-ভ্যাকসিন’ যেন এখন সংকটকালে স্বস্তির বাতাস বয়ে নিয়ে আসছে। এই কোভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ এবং পুণের ভারত বায়োটেক ইন্টারন্যাশনালের যৌথ উদ্যোগে।


শনিবার ভারত বায়োটেকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, স্তন্যপায়ী পশুর উপর কোভ্যাকসিন প্রয়োগ করে ব্যাপক সাফল্য মিলেছে। মানব শরীরে এই টিকার পরীক্ষার পাশাপাশি স্তন্যপায়ী পশুর উপরও প্রয়োগ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, পশুর শরীরে সক্রিয় ভাইরাস সংক্রমণ সাফল্যের সঙ্গে প্রতিরোধ করেছে কো-ভ্যাকসিন। একইসঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও গড়ে তুলছে। 


প্রথম পর্যায়ের এই বড়সড় সাফল্য মেলায় এখন করোনা র‍ুখতে আশার আলো দেখাচ্ছে ভারতের কো-ভ্যাকসিন। ভারত বায়োটেকের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ২০টি বিশেষ প্রজাতির বাঁদরকে চারটি দলে ভাগ করে এই টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল। গবেষকরা যতটা ফলাফল আশা করেছিলেনস তার থেকে অনেক বেশি সাফল্য মিলেছে। নির্দিষ্ট পরিমাণ ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়ার কয়েক দিন পরে তাদের নাক, কান, ম‍ুখ, গলা ও লিভার থেকে নমুনা পরীক্ষা করে ভাইরাস স্ট্রেনের কোনও চিহ্ন মেলেনি। এতেই প্রমাণ হয়, ওই টিকা তাদের শরীরে ঢুকে ভাইরাস প্রতিরোধী সুরক্ষা বর্ম তৈরি করে ফেলে। আরও একটি ইতিবাচক বিষয় হল, এই ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। শ্বাসযন্ত্রের রোগ, কিংবা নিউমোনিয়া হয়নি। পরীক্ষার এটা সবচেয়ে ভালো দিক বলে জানিয়েছে ভারত বায়োটেক।


সংস্থার তরফ থেকে টু্যইট করে জানানো হয়েছে, ‘ভারত বায়োটেক গর্বের সঙ্গে ঘোষণা করছে যে, কো-ভ্যাকসিনের প্রাণী শরীরে পরীক্ষা সফল হয়েছে। দেখা গেছে এই টিকার প্রভাব প্রাণীদের শরীরেও বেশ সক্রিয় ও ইতিবাচক। এর প্রভাবে শরীরে তৈরি হচ্ছে অ্যান্টিবডিও।’


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only