সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সুড়ঙ্গ আবার কি? এটা তো আমাদের ‘নিচের ঘর’‌: আবু সুফিয়ানের স্ত্রী নুরন্নেসা বিবি

বিশেষ প্রতিবেদক,  বহরমপুর‌: এনআইএ-র হাতে গ্রেফতার আবু সুফিয়ানের বাড়িতে মাটির তলায় সুড়ঙ্গ পাওয়া গিয়েছে বলে বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে বারবার দেখানো হচ্ছে। এমনভাবে এই ‘সুড়ঙ্গ’কে দেখানো হচ্ছে যে তাতে মনে হবে, এই সুড়ঙ্গ দিয়েই হয়তো দেশ-বিদেশে যাওয়া যায়। স্থানীয় মানুষ থেকে বাড়ির মহিলারা বারবার এই ‘সুড়ঙ্গে’ নেমে ও পরে উঠে দেখেছে আসলে কতদূর যাওয়া যায়।


অতীতে মাটির অনেক বাড়িতেই এমন বহু ‘সুড়ঙ্গ’ পাওয়া যেত। মাটির বাড়ির মেঝের পাশে গর্ত করে নিচে নেমে একটা বিছানার সমান জায়গা বেশিরভাগ বাড়িতে থাকত। গ্রামে এই আন্ডারগ্রাউন্ড ঘর স্টোর-রুম হিসাবে ব্যবহার হত। তাছাড়াও বেশিরভাগ আন্ডার গ্রাউন্ড রুমেই ধান, গম বা এই জাতীয় জিনিস রাখা হত। এখন পাকা বাড়ি হওয়ায় এই ধরনের আন্ডারগ্রাউন্ড ঘর উঠে গিয়েছে। তবে কোথাও যদি পাওয়া যায়, কারও বাড়িতে যদি পাওয়া যায় এমন ঘরের, তবে তা দেখার বস্তুতে (দ্রষ্টব্যে) পরিণত হয়। রানিনগর থানার রামনগর গ্রামে আবু সুফিয়ানের বাড়ির ৬ ফুট বাই ৭ ফুটের আন্ডারগ্রাউন্ড ঘর দেখে তদন্তকারী সংস্থা ও মিডিয়ার বন্ধুরা ‘সুড়ঙ্গ’ বলে বর্ণনা করছেন। সুড়ঙ্গ সেটাই হয় যার একদিক থেকে প্রবেশ করে অন্যপ্রান্ত দিয়ে বের হওয়া যায়।


আবু সুফিয়ানের প্রতিবেশী মনজুর সেখ জানিয়েছেন, টিভিতে ‘সুড়ঙ্গ’র খবর দেখে আবার সুফিয়ানের বাড়িতে আসি। এসে ‘সুড়ঙ্গে’ নেমে দেখি কোন দিক থেকেই সেটিকে ‘সুড়ঙ্গ’ বলা যায় না। টিভি নিউজ দেখে মনে হচ্ছিল, এই ‘সুড়ঙ্গ’ দিয়ে  বোধহয় অন্য কোনও দেশ বা প্রদেশে পৌঁছে যাওয়া যাবে। আসলে ওই ‘সুড়ঙ্গ’ বা ছোট কুঠরিতে যে বাড়ির জিনিসপত্র রাখা হয়, সেটা পাড়ার সবাই জানে। গ্রামের এই সব ঘরে তো কোনও গোপনীয়তা নেই।


আবু সুফিয়ানের স্ত্রী নুরন্নেসা বিবি বলেন, বাড়ির অব্যবহৃত অনেক জিনিস আছে, যেগুলি ফেলে দেওয়া যায় না। আবার সব সময় ব্যবহারও হয় না। এমন জিনিসপত্র ও তিন বস্তা ধান রাখা আছে এই নিচের ঘরে। সুড়ঙ্গ আবার কি? এটা তো আমাদের ‘নিচের ঘর’।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only