মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

যারা দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করছে তারা রেহাই পাবে না : মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

  


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক :  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, যারা মানুষের মধ্যে দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করছে তারা রেহাই পাবে না। তিনি আজ মঙ্গলবার পুলিশ দিবস উপলক্ষে রাজ্য সচিবালয় নবান্নে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময়ে ওই মন্তব্য করেন।  

বিজেপি’র নাম না করে ক্ষুব্ধ মমতা বলেন, ‘আজকে সকাল থেকে ‘ফেক আইটি সেল’, তাদের নাম বলে বড় করতে চাই না। তারা সরকারি কোনও সিদ্ধান্ত না হলেও হোয়াটসঅ্যাপে রটিয়ে দিয়েছে এবার দুর্গাপুজোর সময়ে কাউকে রাস্তায় বেরোতে দেওয়া হবে না, সারারাত কারফিউ থাকবে! আমি বলি এরা কোন হরিদাস? কোন মূর্খের দল? এটা কোন অসভ্যতার প্রতীক? কোন অসৌজন্যতার প্রতীক? যারা আমাদের দুর্গাপুজোকে নিয়ে অবহেলা করে, অসম্মান করে? মনে রাখবেন, মহরমের যেমন একটা পদ্ধতি আছে, ঈদ মুবারকের যেমন একটা পদ্ধতি আছে। তেমনই বাংলার দুর্গাপুজো আমাদের জাতীয় উৎসব। এই উৎসব নিয়ে বড় বড় কথা যারা বলছেন, আর মানুষে মানুষে দাঙ্গা করবার চেষ্টা করছেন তারা কিন্তু রেহাই পাবে না। আমি পুলিশকে নির্দেশ দিচ্ছি যেখান থেকে ভুয়া বার্তা দেওয়া হয়েছে তাদের কান ধরে একশো বার উঠবস করাবে এটা আমি দেখতে চাই। জনগণের সামনে তাদের কান ধরে উঠবস করাতে হবে। বাংলাকে অসম্মান করার অধিকার তাদের কে দিলো?’ 

মমতা আরও বলেন, ‘এতবড় অসভ্য! ঔদ্ধত্যের দল! পাষণ্ডের দল! নির্লজ্জ দল! নৃশংস দল! নিপীড়নের দল! শোষণের দল! সরকার এখনও পর্যন্ত দুর্গাপুজো নিয়ে কোনও বৈঠকই করেনি। এখনো করোনা মহামারী চলছে। আমরা জানি না কী পরিস্থিতি হবে। আপনারা সকলেই জানেন প্যানডেমিকের জন্য এবছর ঈদ থেকে শুরু করে, মহরম থেকে শুরু করে, পয়লা বৈশাখ, কেউ কোনও উৎসব পালন করতে পারেনি। আমরা সবাই সবধর্ম মিলে সেটা মেনে নিয়েছি। দুর্গাপুজোর এখনও অনেক দেরী আছে। আমাদের দেখতে হবে প্যানডেমিক পরিস্থিতি কী অবস্থায় আছে। আমরা কথা বলব, বৈঠক করব।’



মমতা বিজেপি’র নাম না করে কটাক্ষ করে বলেন, ‘আপনাদের ভাববার কোনও প্রয়োজন নেই। যারা জীবনে দুর্গাপুজো করেনি। মা দুর্গাকে চেনে না, যারা জীবনে কালীপূজো করেনি। যারা জীবনে হনুমানকে দুটো কলা খাওয়ায় না, তারা আজকে হঠাৎ করে ধর্মভীরু হয়ে গেছে! মিথ্যে কথা রটিয়ে দিচ্ছে।’  

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘যে রাজনৈতিক দল এসব করে থাকুন, আমি তাদের বলি সবকিছুর একটা সীমারেখা থাকা দরকার। সাহস থাকলে সামনে দাঁড়িয়ে বলুন। লুকিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে করছেন কেন? কানামাছি খেলছেন কেন? চোর-ডাকাতের খেলা খেলছেন কেন? লুকোচুরি খেলছেন কেন?’   

পুলিশকে যারা হুমকি দিচ্ছেন, গালি দিচ্ছেন তাদের ছাড়া হবে না বলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only