বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে বিরুপ মন্তব্য,হিন্দু মহাসভার জাতীয় মুখপাত্রের বিরুদ্ধে মামলা



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ হিন্দু মহাসভার জাতীয় মুখপাত্র অশোক পান্ডেকে আলিগড় পুলিশ আটক করেছে। একটি সাক্ষাৎকারে তিনি আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের (এএমইউ) শিক্ষার্থীদের ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দিয়েছিলেন এবং প্রতিষ্ঠানটিকে ‘সন্ত্রাসীদের জন্য একটি মাদ্রাসা’ আখ্যা দেন।

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অভিযোগ দায়েরের পরে সিভিল লাইন্স পুলিশ পান্ডেকে ভারতীয় পেনাল কোডের (আইপিসি)  সেকশন ১৫৩ এ, ১৫৩ বি এবং ৫০৫ (২)   বিদ্বেষ সৃষ্টির অভিযোগে একটি এফআইআর  গ্রহণ করে ।

অশোক পান্ডে এএমইউর প্রতিষ্ঠাতা স্যার সৈয়দ আহমদ খানকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে সন্ত্রাসীদের শ্রেণিকক্ষ বলে  একটি নিউজ চ্যানেলকে  দেওয়া সাক্ষাৎকারে উল্লেখ করেন।

এএমইউ কর্তৃপক্ষ অভিযোগে বলেছে যে  এই মন্তব্য কেবল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ নষ্ট নয় শহরের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিও নষ্ট করতে পারে।

এফআইআর বলা হয়েছে দু’টি সম্প্রদায়ের মধ্যে বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য যারা এএমইউ এবং একটি বিশেষ সম্প্রদায়কে ভালবাসে তাদের অনুভূতিতে আঘাত করার জন্য এই বিবৃতি জারি করা হয়েছিল।

এএমইউর মুখপাত্র শফি কিদওয়াই বলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি নজরে রেখে পুলিশ পান্ডের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে।

এএমইউর মুখপাত্র আরও বলেছেন আমরা ভিডিওটি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে সরানোর দাবি জানিয়েছি কারণ এটি দুটি সম্প্রদায়ের মধ্যে মতপার্থক্য সৃষ্টি করতে পারে ।

এএমইউ কর্মকর্তারা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক  আগস্ট মাসে অনলাইনে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি পরীক্ষা কেন্দ্রের উদ্বোধনকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশংসা করেন এবং এর প্রতিষ্ঠাতা , শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের তিনি ‘জাতীয়তাবাদী’ হিসাবেও প্রশংসা করেছিলেন।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only