শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

মাছের মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় শোক ! হবে ময়নাতদন্তও



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ যে কোনও মৃত্যুই দুঃখজনক। তবে প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি  কিংবা বিরোধী দলনেতার মতো হেভিওয়েট কিংবা সেলিব্রিটিদের মৃত্যু হলে শোকের ছায়া নেমে আসে সব দেশেই। কিন্তু জিম্বাবয়েতে মোমবাতি প্রজ্বলন এবং মৌন মিছিল করে যেভাবে রাষ্ট্রীয় শোক পালন চলছে তা সম্পূর্ণ ব্যতক্রমী। কারণ আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের দেশটিতে কোনও ভিভিআইপি মারা যাননি। একটা মাছের জন্য রাষ্ট্রীয় শোক পালিত হচ্ছে। সে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয় কপারবেল্ট ইউনিভার্সিটি চত্বরের পুকুরে ছিল মাছটা। ২২ বছরের জীবদ্দশার ২০টা বছর এখানেই কেটেছে তার।  বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তার নাম রেখেছিলেন ‘মাফিশি’। এর অর্থ ‘সৌভাগ্যের প্রতীক’। এখানকার পড়ুয়া ও অধ্যাপকরা মাফিশিকে তাঁদের সৌভাগ্যের প্রতীক হিসেবেই বিবেচনা করতেন। তাই পরীক্ষার আগে পড়ুয়াদের একটা বড় অংশ তাকে  খাবার দিত। তাছাড়া এমনিতে সকলেই ক্যাম্পাসে ঢোকার সময় কিংবা ছুটির সময় মাফিশিকে একটিবার দেখে যেতেন। তাই আচমকা তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে কি না তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মাফিশির মৃত্যুতে  শোকবার্তা এসেছে কপারবেল্ট ইউনিভার্সিটিতে। রাষ্ট্রপ্রধান  থেকে শিক্ষামন্ত্রী, বিরোধী দলনেতা থেকে প্রশাসনিক কর্মকর্তারাও এই শোকে শামিল হয়েছেন। জানা গিয়েছে তদন্তের পর মাফিশি-র মরদেহ সংরক্ষণ করে রাখবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only