রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

কোটালের জলে আবার ডুবল মৌসুনির ১ লা ঘেরী

 

সামিম আহমেদ, মৌসুনি : কোটালের জলে ফের ডুবল নামখানা ব্লকের মৌসুনি গ্রাম পঞ্চায়েতের বাগডাঙ্গা লা ঘেরি শুক্রবার শনিবার সকাল থেকেই ক্রমাগত  সমুদ্রের জোয়ারের জল বাড়তে থাকে কোথাও ভাঙ্গা নদী বাঁধ থেকে  কোথাও বা নদী বাঁধ উপচে জোয়ারের জল ঢুকে পড়ে বাগডাঙ্গার ১লা ঘেরির বেশ কয়েকটি জায়গায় ঢুকে পড়ে নোনা জল ঢুকে প্লাবিত হয় কৃষিজমি, সবজি ক্ষেত জল ঢুকে পড়ে গ্রামের মধ্যে জলমগ্ন হয়ে পড়ে ঘরবাড়ি স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে কোনরকম সাহায্য পায়নি বলে গ্রামবাসীদের অভিযোগ ক্ষোভে ফুঁসছে এলাকার মানুষ এমনকি তাদের প্রতি চরম উদাসীন মনোভাব স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের সেই সঙ্গে এখানে পাকাপাকিভাবে নদী বাঁধ মেরামতের দাবি তুলেছেন গ্রামবাসীরা



বাগডাঙ্গার বাসিন্দা রহমান খান, মোসলিম মল্লিক, ইসরাফিল শেখরা জানান, মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ফলে ঐতিহাসিক মৌসুনি দ্বীপের বাগডাঙ্গার লা ঘেরির বাসিন্দারা অবহেলিত প্রাকৃতিক দুর্যোগে বরাবরই আমরা ক্ষতিগ্রস্থ আম্ফান ঝড়ে আমরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি কিন্তু সরকারিভাবে কোনো সাহায্য সহযোগিতা পাইনি গ্রাম পঞ্চায়েত আমাদের দিকে ফিরে তাকায় নি মাস খানেক আগে কৌশিকী অমাবস্যার ভরা কোটালের সঙ্গে টানা বৃষ্টি ঝড়ো বাতাসের ফলে সমুদ্র গর্ভে জলস্তর বেড়ে গিয়ে আমাদের বাগডাঙ্গা ১লা ঘেরি নদী উপকূলবর্তী এলাকার ১২০০ মিটার নদী বাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত হয়েছিল লবণাক্ত জল বুকের ক্ষতি হয়েছে পানীয় জলের সমস্যা দেখা দিয়েছে ঘরবাড়ি জলমগ্ন হয়ে পড়েছে দিনমজুরি করে কোনরকমে আমরা সংসার চালাই চাষবাস নষ্ট হওয়ায় আমাদের অনাহারে দিন কাটাতে হচ্ছে কি করব ভেবে উঠতে পারছি না আমাদের ব্যাপারে শাসক দলের সদস্য প্রধানের কোনো হেলদোল নেই 
নামখানার বিডিও সান্তনু শান্তনু সেন ঠাকুর জানান, আমি মৌসুনি নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শনে গিয়েছিলাম মহকুমা শাসক সেচ দফতরের সঙ্গে কথা বলেছেন ওখানে স্থায়ীভাবে নদী বাঁধ তৈরীর পরিকল্পনা করা হয়েছে খুব শীঘ্রই সেই কাজ শুরু হবে আমরা সমস্ত বিষয়টির উপর নজর রাখছি
কাকদ্বীপ মহকুমা সেচ দফতরের কার্য্যনির্বাহি বাস্তুকার কল্যান দে জানান, নামখানা ব্লকের নতুন বাঁধ তৈরি মেরামত করা হয়েছে কোটালের জন্য নদী সমুদ্রের জলের উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় বাদ উঠছে এলাকায় জল ঢুকে পড়েছে তড়িঘড়ি বাঁধ গুলির মেরামত করে দেওয়া হচ্ছে
উল্লেখ্য, নামখানা ব্লকের মৌসুনি দ্বীপ মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ফলে এই এলাকার মানুষরা সরকারি সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত মাস খানেক আগে কৌশিকী অমাবস্যার ভরা কোটালের সঙ্গে টানা বৃষ্টি ঝড়ো বাতাসের ফলে সমুদ্র গর্ভে জলস্তর বেড়ে গিয়ে এই দ্বীপের বাগডাঙ্গা ১লা ঘেরি নদী উপকূলবর্তী এলাকার ১২০০ মিটার সমুদ্র মুড়িগঙ্গা নদী বাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত হয়েছিল নদী বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে সমুদ্রের লবণাক্ত জল গ্রামে ঢুকে এলাকা প্লাবিত হয় কাঁচা বাড়ি গুলো ক্ষতির মুখে পড়ে সমুদ্রের নোনা জল ঢুকে পড়ায় যাওয়ার ফলে কৃষিজমি ব্যাপক ক্ষতি হয় সমস্যা দেখা দেয় পানীয় জলের এখানে পাকাপাকিভাবে নদী বাঁধ মেরামতির কাজ শুরু হয়নি 
 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only