বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্ব বাতিল ! ‘দেশে গণতন্ত্র ধ্বংসের চেষ্টা চলছে’ ? কী বলছে বিরোধীরা ? পড়ুন তড়িঘড়ি



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ বার সংসদের বাদল অধিবেশনে সরকার পক্ষকে প্রশ্ন করার কোনও সুযোগ পাবেন না বিরোধীরা। এর প্রতিবাদে গর্জে উঠেছে বিরোধী দলগুলো। দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বেহাল। কমছে জাতীয় আয়। বাড়ছে বেকারত্ব। করোনা মোকাবিলা নিয়েও সরকারের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ বিরোধী শিবিরের। এ ছাড়াও কাঠগড়ায় মোদি সরকারের বিদেশনীতি। বিরোধীদের অভিযোগ  প্রতিপক্ষের প্রশ্নবাণ এড়াতেই এই পদক্ষেপ করেছে শাসক পক্ষ। করোনা আবহে সংসদের আসন্ন বিশেষ বাদল অধিবেশনে প্রশ্নোত্তরের পর্বের জন্য বরাদ্দ সময় বাতিল করা হল বলে বুধবার লোকসভা ও রাজ্যসভার সচিবালয় থেকে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয় যে  চলতি মাসের ১৪ থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত বাদল অধিবেশন হবে। প্রতিদিন মাত্র মাত্র ৪ ঘণ্টা করে হবে অধিবেশন। তাই সংসদ অধিবেশনের প্রথম ঘণ্টা অর্থাৎ প্রশ্নোত্তর পর্ব পুরোপুরি ছেঁটে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। ১৯৫০ সালের পর এই প্রথমবার সংসদের অধিবেশনে কোনও প্রশ্নোত্তর পর্ব থাকছে না। স্বাভাবিকভাবেই ক্ষুব্ধ বিরোধীরা।এ নিয়ে কংগ্রেসের অধীর চৌধুরি, শশী থারুর থেকে তৃণমূলের ডেরেক ও ব্রায়েন সকলেই সরব হয়েছেন। তাঁরা বলছেন যে শাসক পক্ষ সুকৌশলে বিরোধীদের ন্যায্য অধিকার কেড়ে নিতে চাইছে। আসলে যে কোনও ধরনের প্রশ্নের মুখোমুখি হতেই ভয় পায় মোদি সরকার। জিরো আওয়ারের সময়সীমা কমা নিয়েও ক্ষুব্ধ বিরোধী শিবির। টু্ইটে তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন লেখেন যে‘প্রশ্নোত্তর পর্বের জন্য ১৫ দিন আগে থেকে প্রশ্ন জমা দিয়ে রাখতে হয় সাংসদদের। ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে অধিবেশন শুরু হচ্ছে অথচ সেই প্রশ্নোত্তর পর্বই বাতিল? বিরোধীদের কাছ থেকে সরকারকে প্রশ্ন করার অধিকারই কেড়ে নেওয়া হল। ১৯৫০-এর পর এই প্রথম। সংসদের কাজকর্মের সময়সীমা আগের মতোই রয়েছে, তাহলে শুধুমাত্র প্রশ্নোত্তর পর্বই বাতিল করা হল কেন? অতিমারিকে অজুহাত বানিয়ে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হচ্ছে।’ ডিএমকে নেত্রী কানিমোঝির প্রশ্ন -‘একটা বার্তাতেই পুরো প্রশ্নোত্তর পর্ব বাতিল করে দেওয়া হল। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সরকারের কাছে প্রশ্ন করারও অধিকার নেই?’ গত সপ্তাহেই লোকসভার কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরি আসন্ন অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্ব না বাদ দেবার জন্য স্পিকার ওম বিড়ললাকে চিঠি দিয়েছিলেন। রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা তথা কংগ্রেস সাংসদ গুলাম নবি আজাদ যদিও বলেছেন ‘বিশেষ পরিস্থিতিতে এই অধিবেশন হচ্ছে। তাই স্বভাবিক পরিস্থিতে যে কাজ সভায় হয় তা এবার করা যাবে না।’


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only