বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

পুজোর চাঁদার নামে তোলাবাজি, প্রতিবাদ করতে গিয়ে মার খেতে হল এক আবাসিক ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে



পুবের কলম প্রতিবেদকঃকোনও অজ পাড়া গাঁ নয়। কলকাতার প্রাণকেন্দ্রের অনতিদূরে পর্ণশ্রী এলাকায় একটি আবাসনের বাসিন্দাদের থেকে পুজোর চাঁদার নামে  মোটা টাকা তোলাবাজির অভিযোগ উঠল। যার বিরোধ করতে গিয়ে স্থানীয় ক্লাবের হুমকি, গুন্ডামির শিকার হতে হল আবাসনের বাসিন্দাদের। আবাসনের প্রতিবাদী বাসিন্দা ইমরান আলি কায়সারকে বেদম প্রহার করে স্থানীয় ক্লাবের সদস্যরা। সেই সময় ইমরানকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। কিন্তু তাঁকেও বেধড়ক মারধর করতে পিছুপা হয়নি ওই ক্লাবের সদস্যরা। গোটা ঘটনায় প্রতিবাদীর পরিবার সহ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন গোটা আবাসনের বাসিন্দারাই। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি নিয়ে ইতিমধ্যেই পর্ণশ্রী থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, পর্ণশ্রী থানা এলাকার বকুলতলা রোডের ধর্মরাজ মন্দিরের কাছে ‘মিতালি সংঘ’ নামে একটি ক্লাব রয়েছে। সেই ক্লাবের পাশেই নতুন তৈরি হয়েছে মধুমিতা প্যালেস নামে একটি আবাসন। সেখানে এখন ১০টি পরিবার বসবাস করেন। কয়েকদিন আগে ক্লাবের সদস্যরা ওই আবাসনে এসে বলে যায় মন্দির তৈরির জন্য প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা করে দিতে হবে। তা না দিলে বিপাকে পড়তে হবে। হুমকির মুখে দাঁড়িয়ে প্রত্যেক বাসিন্দা ঠিক করেন, ক্লাব সদস্যদের হাত থেকে রেহাই পেতে  ২৫ হাজার টাকা মতো চাঁদা তুলে দেওয়া হবে। কিন্তু ক্লাব সদস্যরা এত কম পরিমাণ টাকা শুনেই ক্ষিপ্ত হয়ে যান। অভিযোগ, বুধবার ওই আবাসনে ঢুকে হুমকি দিতে শুরু করে ক্লাব সদস্যরা। দাবি মতো টাকা না দিলে লাশ ফেলার হুমকি দেওয়ার পাশাপাশি মহিলাদের গণধর্ষণ করে রাস্তার মধ্যে নগ্ন করে পাড়ায় ঘোরাবার হুমকিও দেওয়া হয়। তখনই ওই আবাসনের বাসিন্দা ইমরান আলি কায়সার অন্যায়ের প্রতিবাদ করেন। ইমরানকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। কিন্তু তাঁকেও বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে।এই নিয়ে পর্ণশ্রী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হলেও এখনও পর্যন্ত পুলিশ কোনও পদক্ষেপই নেয়নি বলে জানিয়েছেন ওই আবাসনের বাসিন্দারা। কেউ গ্রেফতারও হয়নি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only