শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২০

ওষুধ নিয়ে গবেষণার জন্য আন্তর্জাতিক পুরস্কার আলিয়ার প্রফেসরকে

আবদুল ওদুদ

ভিডিগুড আন্তর্জাতিক সায়েন্টিস্ট অ্যাওয়ার্ড পেলেন কলকাতা আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অ্যাসিসট্যান্ট প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মইদুল ইসলাম। সম্প্রতি কোয়েম্বাটুরে অনুষ্ঠিত এক কনফারেন্সে বেস্ট রিসার্চার অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়। বাংলার এই তরুণ সায়েন্টিস্টকে। তিনি ছাড়াও বিশ্বের আর ৫ জন গবেষককে পুরস্কার কলকাতা আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এই তরুণ প্রফেসর মূলত নতুন ওষুধের কার্যকারিতা নিয়ে গবেষণা করেন। 


ওষুধ উদ্ভাবনের কতগুলি ধাপ রয়েছে, তা নিয়েই সারা বছর ধরে গবেষণা করেন। তিনি জানান, যে সমস্ত ধাপ রয়েছে তার মধ্যে হল, ওষুধের গঠন নির্ণয়, সিন্থেসিস, মানব কোষের উপর কার্যকারিতা নির্ণয়, প্রাণীদেহের উপর কার্যকারিতা নির্ণয়, মানব শরীরের উপর কার্যকারিতা নির্ণয়। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে মইদুল ইসলাম বলেন, মানবশরীরে যেকোনও রোগ কতগুলি ধাপের মধ্যে দিয়ে যায়। প্রত্যেক ধাপের জন্য কতগুলি এনডাইম দায়ী থাকে। এক্ষেত্রে কোনও ওষুধের কার্যকারিতা নির্ভর করে ওই ওষুধ এনজাইমগুলির সঙ্গে তার বন্ধনের উপর। এনজাইম ছাড়াও কিছু ওষুধ ডিএনএ, আর এনএতে গিয়ে বন্ধন করতে পারে। যেমন অ্যান্টিক্যানসার ড্রাগ, অ্যান্টিভাইরাল ড্রাগ ইত্যাদি। 


মইদুল ইসলাম বলেন, যেকোনও জৈব অণু বা ওষুধের বন্ধন কার্যকারিতা নির্ভর করে তাদের আনবিক গঠনের উপর। আবার কাছাকাছি গঠন যুক্ত কিছু জৈব অণুর আনবিক গঠনের সঙ্গে তার কার্যকরণ নির্ণয় করা গেলে গণনার দ্বারা কোনও জৈব অণুর গঠন নির্ণয় করা যায়, যেটি আশানুর‍ূপ কাজ করবে। এই উদ্ভাবনের দ্বারা নতুন কোনও ওষুধ ডেভালপমেন্টের খরচ এবং সময় অনেক কম করা যাবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only