বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর, ২০২০

ক্যানসার নিয়ে গবেষণায় অবদান স্বরুপ সিডিআরআই পুরস্কারে ভূষিত হলেন ড. বুশরা আতিক ও অন্যান্যরা

 


আসিফ রেজা আনসারী

কয়েক দিন আগেই বিজ্ঞানের সেরা পুরষ্কার  শান্তিস্বরুপ ভাটনগর পেয়েছিলেন আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনী ও কানপুর আইআইটির অধ্যাপক ড. বুশরা আতিক। তাঁর মুকুটে ফের নতুন পালন যোগ হল। এবার তিনি সিডিআরআই পুরস্কারে ভূষিত হলেন। ভাটনগর পুরষ্কারে যেমন বাঙালির ছিল জয়জয়কার, তেমনি এখানেও রয়েছেন এক বাঙালি বিজ্ঞানী নাম। অধ্যাপক বুশরার পাশাপাশি ওই পুরষ্কার পেলেন ড. সুরজিত ঘোষ ও ড. রবি মঞ্জিথাইয়া।


কেন্দ্রীয় সরকারের বিজ্ঞান মন্ত্রকের অধীন সিএসআইআর-সেন্ট্রাল ড্রাগ রিসার্চ ইন্সটিটিউট বা সিডিআরআই, লখনউ মঙ্গলবার এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ওই তরুণ গবেষকদের ওষুধ আবিষ্কার ও তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য সিডিআরআই পুরস্কারে ভূষিত করে। সরকারিভাবে জানানো হয়েছে, ক্যানসারের একটি জটিল ধাঁধার রহস্য উন্মোচনে অবদান রেখেছেন ওই বিজ্ঞানীরা। সিডিআরআই-এর বর্তমান অধিকর্তা অধ্যাপক তাপস কুন্ডু ও প্রাক্তন অধিকর্তা ড. ভি পি কাম্বোজ পুরষ্কার বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।


প্রসঙ্গত, দেশে বৈজ্ঞানিক কৃৎকৌশলের প্রসার ও চিকিৎসা বিজ্ঞানের উপর গবেষণা ক্ষেত্রে অবদানকে স্বীকৃতি জানাতেই ২০০৪ থেকে সিডিআরআই পুরস্কার দেওয়া শুরু হয়। চিকিৎসা বিজ্ঞান বা ঔষধ নিয়ে গবেষণার ক্ষেত্রে দেশের গৌরবজনক এই পুরস্কার প্রতি বছর ৪৫ বছরের কম বয়সী ভারতীয় বিজ্ঞানীদের দেওয়া হয়ে থাকে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শীর্ষ কর্তা, ভাটনগর পুরস্কার প্রাপক ও ন্যাশনাল সায়েন্স অ্যাকাডেমিজের ফেলোসহ বিজ্ঞানীদের নিয়ে গড়া একটি কমিটি মনোনয়ন খতিয়ে দেখে সিডিআরআই-পুরস্কার প্রাপকদের বাছাই করে থাকে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only