বৃহস্পতিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২০

আরব বিশ্বে ব্যাপক জনপ্রিয় এরদোগান, ক‍ুখ্যাত ট্রাম্প

 


বিশেষ প্রতিবেদক‌: তুরস্ক তথা ইসলামি বিশ্বের অগ্রগামী নেতা হিসাবে উঠে এসেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। একটা দেশ ও জাতিকে পরিচালনার সমস্ত গুণ রয়েছে তাঁর মধ্যে। ইসলামি মূল্যবোধ ও আদর্শকে বুকে আগলে রেখে পথ চলতে অভ্যস্ত তিনি। তাই মহান আল্লাহ ছাড়া কারোর কাছে কখনোই মাথা হেঁট করতে নারাজ এরদোগান। ইনসাফের পক্ষে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়াটাই তাঁর রাজনীতি-কূটনীতির অন্যতম শক্তিশালী দিক। আর হয়ত এ কারণেই আরব-সহ বিশ্বের বহু দেশই এখন ঈর্ষার চোখে দেখছে আঙ্কারাকে। 


তুরস্ককে কোণঠাসা করার উপায় খুঁজছেন অধিকাংশ আরব দেশের তাবড় রাজনীতিবিদরা। এই রাজনীতিবিদদের মনে একটাই ভয়, গণতন্ত্রকামী ও প্রগ্রতিশীল চিন্তাধারার এরদোগান যদি তাঁর নৈতিকতার বলে বলীয়ান হয়ে সকলকে উদ্বুদ্ধ করতে থাকেন তাহলেই বিপদ। রাজতন্ত্রী শাসকদের সেই ধারণা কিঞ্চিৎ ভুলও নয়। এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, সিংহভাগ আরব জনগণ রিসেপ এরদোগানকেই তাদের সবচেয়ে বড় শুভাকাঙ্ক্ষী মনে করছেন। তুরস্ক ও প্রেসিডেন্ট এরদোগানের বিষয়ে আরব দেশের সরকার ও জনগণের এই বিপরীতমুখী অবস্থান প্রকাশিত হয়েছে বিশ্বের ১৩টি দেশে পরিচালিত এক জনমত সমীক্ষায়। 


সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের ৫৮ শতাংশই মনে করেন, অন্য যে কোনও দেশের নীতির তুলনায় তুরস্কের মধ্যপ্রাচ্য নীতি আরব স্বার্থের পক্ষে। ফিলিস্তিন ইস্যু তো বটেই, সিরিয়া এবং লিবিয়া নিয়েও তুরস্কের অবস্থানকে সমর্থন করছেন সংখ্যগরিষ্ঠ আরবরা। তুরস্কের পর চিন ও জার্মানির মধ্যপ্রাচ্য নীতিকে সমর্থন করেছেন ৫৫ শতাংশ আরব নাগরিক। তবে সবচেয়ে, নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশিত হয়েছে আমেরিকার প্রতি। মধ্যপ্রাচ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের যুদ্ধ-দাঙ্গা বাঁধানোর কূটনীতি নিয়ে অসন্তুষ্ট অধিকাংশ আরব জনগণ। এই জনমত সমীক্ষাটি পরিচালনা করেছে দোহা ও বেইরুট ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা ‘আরব সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি স্টাডিজ।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only