মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০

কৃষ্ণগহ্বর গবেষণায় নোবেল তিন পদার্থবিজ্ঞানীর



স্টকহোম,৬ অক্টোবরঃ চিকিৎসার পর পদার্থ বিজ্ঞানেও নোবেল পেলেন তিনজন। তবে কৃষ্ণগহ্বর নিয়ে গবেষণায় নোবেলজয়ীর তালিকায় রয়েছেন এক মহিলা পদার্থবিজ্ঞানী। ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির রজার পেনরোস, মার্কিন পদার্থবিদ আন্দ্রিয়া ঘেজ এবং জার্মান গবেষক রেইনহার্ড গ্যাঞ্জেলের নাম মঙ্গলবার ঘোষণা করে সুইডিশ একাডেমি। সোমবার সর্বপ্রথম তিন চিকিৎসা বিজ্ঞানীর নাম এ বছর নোবেলজয়ী হিসেবে ঘোষিত হয়। 


উল্লেখ্য, মহাজগতের অন্যতম বিস্ময় কৃষ্ণ গহ্বর। আমাদের গ্যালাক্সির কেন্দ্রবিন্দুতে একটা বিশালাকার অখণ্ড বস্তু হল এই গহ্বর। মহাকাশের সবথেকে অন্ধকারময় দিকটায় আলোকপাতের চেষ্টা করেছে এই তিন কৃতীর গবেষণা। সর্বগ্রাসী ও মহাশক্তিশালী গহ্বর নিয়ে বৈজ্ঞানিক সত্য কিংবা জল্পনা-কল্পনা এখনও বাস্তব। 


এদিন তিন পদার্থবিজ্ঞানীর নাম ঘোষণা করতে গিয়ে নোবেল কমিটি বলে– কৃষ্ণ গহ্বরের গঠন নিয়ে ব্রিটিশ বিজ্ঞানী রজার পেনরোসের আবিষ্কার আপেক্ষিকতার সাধারণ তত্ত্বের আগেরকার অনুমানকেই জোরালো করেছে। তাই প্রাপক হিসেবে নোবেল পুরস্কারের সম্মান ও আর্থিকমূল্যের অর্ধেক তিনিই পাবেন। বাকি অর্ধেকটা পাবেন অন্য দুই পদার্থবিজ্ঞানী। 


উল্লেখ্য, দীর্ঘ ৫৬ বছর পর ২০১৮ সালে পদার্থবিদ্যায় নোবেল পুরস্কার পান কানাডার মহিলা বিজ্ঞানী ডোনা স্ট্রিকল্যান্ড। আর ১৯০৩ সালে প্রথম মহিলা পদার্থবিজ্ঞানী হিসেবে নোবেল পেয়েছিলেন ম্যারি কুরি বা মাদাম কুরি। সেই হিসেবে এবার আন্দ্রিয়া ঘেজ-এর নোবেলজয় নিঃসন্দেহে ভিন্ন মাত্রা যোগ করল। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only