মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২০

যোগীরাজ্যে এবার পরীক্ষা ক্যাম্পাসে ধর্ষণ



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ­ হাথরাসকাণ্ড নিয়ে প্রতিবাদের আগুনের মাঝেই ফের ‘জঙ্গলরাজ’ উত্তরপ্রদেশে কলেজপড়‍ুয়ার হাতে ধর্ষিতা হলেন এক সপ্তদশী। লজ্জাজনক ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার ঝাঁসি কলেজে। সবচেয়ে আশ্চর্যের যখন ওই কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছিল, তখন কলেজেই উত্তরপ্রদেশের সিভিল সার্ভিসের প্রাথমিক পরীক্ষা চলছিল। ঘটনা ঘিরে শোরগোল শুরু হতেই পুলিশ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই গুণধর পড়‍ুয়াকে গ্রেফতার করেছে। 


পুলিশের কাছে দশম শ্রেণির পড়‍ুয়া ওই কিশোরী অভিযোগ করেছে, ‘রবিবার ঝাঁসি কলেজের সামনে এক পরিচিত যুবকের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিল। আচমকাই কলেজের ১০-১২ জন পড়‍ুয়া জোর করে তাকে ও তাঁর সঙ্গীকে জোর করে কলেজ চত্বরের ভিতরে নিয়ে যায়। সেখানে প্রথমে তার শ্লীলতাহানি করা হয়। পরে ভরত কুশায়াহা নামে এক পড়‍ুয়া ধর্ষণ করে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত বাকিরা সেই ঘটনার ভিডিয়ো রেকর্ডিং করে। হুমকি দেয়, ঘটনার কথা কাউকে জানালেই ভিডিয়ো সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল করে দেওয়া হবে।’ কিশোরীরও আরও অভিযোগ, তার সঙ্গী যুবককে মারধর করার পাশাপাশি সঙ্গে থাকা ২,০০০ টাকাও ছিনতাই করে নেয় অভিযুক্ত কলেজ পড়‍ুয়ারা। 


ঝাঁসির সিনিয়র পুলিশ সুপার দীনেশ কুমার পি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনায় ‘প্রধান দুই অভিযুক্ত রোহিত সাইনি ও ভরত কুশায়াহা সহ মোট আটজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। অন্য কোনও পড়‍ুয়ার বিরুদ্ধে ঘটনায় জড়িত থাকার প্রমাণ পেলে তাদের বিরুদ্ধেও একই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যেখানে সিভিল সার্ভিসের মতো পরীক্ষা চলছিল, সেখানে কীভাবে নির্যাতিতাকে কলেজ চত্বরের মধ্যে নিয়ে যাওয়া হল, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’ ঝাঁসির সিনিয়র পুলিশ সুপার আরও জানান, ‘কিশোরীর চিৎকার শুনেই পরীক্ষা কেন্দ্রের পাহারায় থাকা পুলিশ কর্মীরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে সিপরি বাজার থানায় নিয়ে যায়। ধৃতদের মধ্যে ভরতকেই শনাক্ত করতে পেরেছে নির্যাতিতা।’ 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only