মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০

১০৫ দিন কোভিড পজিটিভ প্রৌঢ়া, হাসপাতালকে ৫ লক্ষ টাকা ফেরানোর নির্দেশ কমিশনের

ফাইল চিত্র


কিডনি সমস্যা নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। এরপর হাসপাতাল থেকেই করোনা সংক্রমণ ছড়ায় পৌঢ়ার শরীরে। এরপর এক দুই দিন নয়। কেটে গিয়েছে ১০৫ দিন। হাসপাতালেই থাকতে হয়েছে ৬৭ বছরের পাপিয়া বসুকে। টানা ১০৫ দিন কোভিড পজিটিভ হাসপাতালে থাকার কারণে পাহাড় প্রমান বিল হয়। প্রায় ৩১ লক্ষ টাকা বিল ধরায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।


অভিযোগের তির ঢাকুরিয়ার এক বেসরকারি হাসপাতালের দিকে। গত ১৪ জুন ওই হাসপাতালে ভর্তি হন প্রৌঢ়া। গত ২৪ সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য কমিশনের কাছে অভিযোগ জমা পড়ে। প্রৌঢ়ার ছেলে এবং বৌমা দুজনেই থাকেন শিকাগোতে। ছেলের অভিযোগ, ''শারীরিক সমস্যা নিয়ে মা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। হাসপাতালে ভেন্টিলেশনে থাকার সময় প্রথমবার সংক্রমণ হয়। সুস্থ হয়ে উঠে দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হন মারণ ভাইরাসে।'' তাঁর প্রশ্ন, ''কেন পুরো বিলের দায়িত্ব আমাদের হবে?''


দু'পক্ষের বক্তব্য শোনার পর স্বাস্থ্য কমিশন হাসপাতালকে ৫ লক্ষ ৮ হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। কমিশন জানিয়েছে, চিকিৎসা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ জমা পড়েনি। ভেন্টিলেশন থেকেই সংক্রমণ ছড়িয়েছে এটাও বলা যায় না। এদিনের শুনানিতে স্বাস্থ্য কমিশনের চেয়ারম্যান অসীম বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, দূরত্বকে উপেক্ষা করে বিচার প্রক্রিয়া চলছে। যখন শুনানি চলছে সেই সময় শিকাগোর ঘড়িতে বাজে রাত ৩টে।


দু’পক্ষের বক্তব্য শোনার পর স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশন মোট ৫ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাসপাতালকে। কমিশনের বক্তব্য, চিকিৎসা সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ নেই। ভেন্টিলেশন থেকেই সংক্রমণ ছড়িয়েছে এমনটা বলা যায় না। গত ১৪ জুন হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন মহিলা। আপাতত তাঁকে ওই হাসপাতাল থেকে ডিসচার্জ করিয়ে নিয়ে গিয়েছে পরিবার।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only