শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০

স্পর্ধা তো কম নয়, মাছি বসল পেন্সের মাথায়



ওয়াশিংটন, ৮ অক্টোবরঃ নাকে মাছি বসায় শেষমেশ নাককেই কেটে ফেলেছিল এক রাজা। কিন্তু তাই বলে মাথায় মাছি বসলে তো আর মাথা কেটে ফেলা যায় না। কিন্তু ভিভিআইপি ব্যক্তির মাথায় মাছি বসলে তাঁর মাথাকাটা কেটে যেতে পারে। এই মাথাকাটা অবশ্য লজ্জায়। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের মাথায় কাকতালীয়ভাবে একটা মাছি উড়ে এসে বসে পড়ে। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা শুরু হয়।


বুধবার সম্ভাব্য ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সের সঙ্গে মুখোমুখি বিতর্কে অংশ নেন তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী কমলা হ্যারিস। নানান ইস্যুতে তাঁরা নিজেদের সুচিন্তিত মতামত তুলে ধরে একে-অন্যকে নাস্তানাবুদ করার চেষ্টা করেন। তবে এ দিন সবথেকে বেশি আলোচনা হয় করোনা মোকাবিলায় ইস্যুতে। এসব গুরুগম্ভীর বিষয়কে শত যোজন পিছনে ফেলে ভাইরাল হয়ে গেল ট্রাম্পের ভাইস প্রেসিডেন্টের মাথায় ক্ষণেকের জন্য উড়ে এসে জুড়ে বসা একটা মাছি। সোশ্যাল মিডিয়ায় তীর্যক কমেন্টস এসেছে, ক্ষুদ্র পতঙ্গ প্রজাতির এই মাছির এত সাহস হয় কী করে।


অন্যদিকে, ট্রাম্পের প্রতিপক্ষ জো বিডেনের পক্ষে প্রচার চালানো এক তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থা এটা ডোমেইন কিনে নিয়েছে। তারা বিষয়টিকে ভিন্ন আঙ্গিকে তুলে ধরেছে। যাতে দেখা যাচ্ছে লাঠি নিয়ে পেন্সের মাথায় বসা মাছি তাড়াচ্ছেন বিডেন। এই ব্যতিক্রমী ছবিটি মাত্র ২৪ ঘণ্টায় সোশ্যাল সাইটে ৫ লাখেরও বেশি লাইক এনে দিয়েছে। কেউবা লিখেছেন, নির্বাচনে পরাজিত হয়ে এবার মাছিমারা কেরানি হবেন পেন্স। 


একজন আবার স্মৃতি রোমন্থন করে লিখেছেন, ২০১৬ নির্বাচনে বিতর্কসভা চলাকালে হিলারি ক্লিনটনের মাথাতেও একটা মাছি বসেছিল। তবে পেন্সের মাথায় বসা মাছিটাই হিলারির মাথায় বসেছিল কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। এরপর কমেন্টস এসেছে, দু’টো মাছি যদি একই হয়, তাহলে তো এবার নির্ঘাত হারছেন ট্রাম্প-পেন্স জুটি। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only