শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২০

অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে বিক্ষোভঃ কেন্দ্রে ঝ‍ুললো তালা



দেবশ্রী মজুমদার, রামপুরহাট‌: অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে নিম্নমানের দ্রব্য দেওয়ার অভিযোগে বিক্ষোভ। বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা ওই অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে তালা ঝ‍ুলিয়ে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে রামপুরহাট পুরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের অধীন কালিসাঁড়া স্বামিজী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে।


কোভিড পরিস্থিতিতে অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে বাচ্চাদের জন্য রান্না না হওয়ার চাল ডাল আলু ইত্যাদি রান্নার সামগ্রী বিতরণ করা হয় অভিভাবকদের মধ্যে। কিন্তু অভিযোগ, এই বিলি হওয়া সামগ্রী নিম্নমানের। চালে পোঁকা থাকছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার ঐ অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা। অভিভাবক চিরণ রায় বলেন, বাচ্চাদের খিঁচুড়ি খাওয়ানোর জন্য যে চাল ডাল দেওয়া হচ্ছে, তা নিম্ন মানের। রেশনে ভাল চাল পাচ্ছি। 


অথচ এই চাল পোঁকা ধরা। আমরা এই চাল নিতে চাচ্ছি না। ভালো চাল আছে। অথচ বলছে দেব না। ওই পোঁকা ধরা চাল নিতে হবে। তাই আমরা অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে তালা মেরে দিয়েছি। তাঁর আরও অভিযোগ, কোন সময় বাচ্চা না থাকলে, অঙ্গনওয়ারী কর্মী চাল ডাল দিতে চান না। বলেন, বাচ্চা নিয়ে এসো।   এব্যাপারে অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রের কর্মী দীপা সেনগুপ্ত  বলেন,এরকমটা হবে, আগে জানতাম। আগেই কালিসাঁড়া স্বামিজী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দিদিমণিদের বলেছিলাম, বর্তমান স্টোর রুমের অবস্থা ভালো নয়। ড্রেনের পাশে রুম। তাই  স্টোর করা চাল ডালে পোঁকা ধরে যাচ্ছে। অভিভাবকদের বলেছিলাম, কেউ সাপোর্ট করে নি। এই ড্যাম ঘরে চাল ডাল খারাপ হবেই। আমার ঘরে তো চাল নেই। তাহলে রোদে শুকোতে দিতাম। 


এ ব্যাপারে ৮ নং ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর প্রিয়নাথ সাউ জানান, এ বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই।  সি ডি পিও র সাথে যোগাযোগ সম্ভব না হলেও, রামপুরহাট-১  বিডিও দ্বীপান্বিতা বর্মণ বলেন, অঙ্গনওয়ারী কর্মী চাল স্টোরের কথা বলতেই পারেন না। কারণ চাল তো সবেমাত্র এল। আর অঙ্গনওয়ারী কেন্দ্রে বাচ্চা নিয়ে আসার কথা তো এই কোভিডের সময় বলতেই পারেন না, কেউ।  ঘটনাটা এই মাত্র আপনার কাছে শুনলাম। সি ডি পিও সাহেবের কাছে বিষয়টি খোঁজ নিচ্ছি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only