শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশিক্ষা প্রকল্পে ছাত্রীদের খ‍ুব কম দামে স্যানিটারি ন্যাপকিন দেওয়ার পরিকল্পনা



এস জে আব্বাস, শক্তিগড়: মেমারীর সাঁওতা গ্রাম পঞ্চায়েতে এই প্রথম সর্বশিক্ষা প্রকল্পে শুরু হচ্ছে স্যানিটারী ন্যাপকিন তৈরির কাজ। মূলত স্কুলের ছাত্রীদের জন্য  অনেক কম দামে এই ন্যাপকিন পৌঁছে দিতে এমন উদ্যোগ। জেলা সর্বশিক্ষা প্রকল্প আধিকারিক মৌলি সান্যাল জানিয়েছেন, 'আগামী সপ্তাহেই শুরু হচ্ছে এই বিষয়ে প্রশিক্ষণের কাজ। প্রথম পর্যায়ে মুম্বাই থেকে ৪ জনের একটি প্রতিনিধি দল ২৫ জন স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাকে এই প্রশিক্ষণ দেবেন। 


প্রশিক্ষণ শেষে এই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা যেমন ন্যাপকিন উৎপাদনের কাজ করবেন, তেমনি তাঁরা অন্যান্য মহিলাদেরও এই প্রশিক্ষণ দেবেন এবং রোজগারের পথ দেখাতে পরবর্তীকালে কন্যাশ্রী কে-২ প্রাপক মেয়েদেরও এই প্রশিক্ষণের অন্তর্ভূক্তির জন্য উদ্যোগ নেওয়া হবে।' তিনি আরও জানিয়েছেন, 'ইতিমধ্যেই ৫ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা ব্যয়ে একটি মেশিন কেনা হয়েছে। যা থেকে গড়ে প্রতিদিন ১২০০টি করে ন্যাপকিন তৈরি করা যেতে পারে।' তবে প্রথম দফায় তাঁদের আশা, ওই প্রশিক্ষিত মহিলারা গড়ে প্রতিদিন ৫০০টি করে ন্যাপকিন তৈরি করতে পারবে। 


জানা গেছে, উৎপাদিত ন্যাপকিন সমস্ত মেয়েদের স্কুলে বাজার থেকে অনেক কম দামে বিক্রি করা হবে। সেক্ষেত্রে ১০টাকার বিনিময়ে ৩ থেকে ৪টি ন্যাপকিন দেওয়া যায় কিনা তা নিয়ে ভাবনা চিন্তা চলছে। আরও জানা গেছে, প্রথম দফায় মেমারী থেকে শুরু হলেও পরবর্তীতে ধাপে ধাপে প্রতিটি মহকুমা ও ব্লকে একটি করে এই মেশিন দেওয়া হবে। তাছাড়া প্রথম দফায় ব্যবহৃত ন্যাপকিন গুলিকে বিজ্ঞানসম্মতভাবে নষ্ট করার জন্য আপাতত জেলার ৪০টি হাইস্কুলকে স্যানিটারি ভেণ্ডিং ও ইনসিনেরেটর মেশিন দেওয়া হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only