বৃহস্পতিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২০

উচ্চশিক্ষিত হয়েও জেলে! দেশে সর্বাধিক ইঞ্জিনিয়ার ও স্নাতকোত্তর বন্দি উত্তরপ্রদেশের জেলে, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট এনসিআরবি-র



মিরাট, ৮ অক্টোবর: সুশিক্ষিত অথচ ঠাঁই জেলে! উচ্চশিক্ষিত বন্দিদের ভিড়ে দেশের মধ্যে সবার ওপরে রয়েছে উত্তরপ্রদেশের সংশোধনাগার। ২০১৯ এর চাঞ্চল্যকর এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে এনেছে এনসিআরবি ক্রাইম ইন ইন্ডিয়া।বন্দিদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা ইঞ্জিনিয়র ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিপ্রাপ্ত।


ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, উত্তরপ্রদেশের ৩,৭৪০ জন বন্দির মধ্যে টেকনিক্যাল বা ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি রয়েছে ৭২৭ জনের, অর্থাৎ ২০ শতাংশ বন্দির। যোগী রাজ্যের পরই এই তালিকায় রয়েছে মহারাষ্ট্র ও কর্নাটকের নাম। এই দুই রাজ্যের সংশোধনাগারগুলিতে ডিগ্রিধারীর সংখ্যা যথাক্রমে ৪৯৫ ও ৩৬২।


শুধু তাই নয়। সংশোধনাগারে সর্বাধিক স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী বন্দিদের সংখ্যার নিরিখেও সবার উপরে স্থান সেই উত্তরপ্রদেশের। দেশজুড়ে এমন ৫,২৮২ বন্দির মধ্যে ২,০১০ জন উত্তরপ্রদেশের। রাজ্যের সংশোধনাগারের ডিরেক্টর জেনারেল আনন্দ কুমার এ বিষয় জানিয়েছেন, 'টেকনিক্যাল গ্র্যাজুয়েটদের অধিকাংশই পণের কারণে খুন ও ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত বা অভিযুক্ত। আর্থিক অপরাধের কারণেও তাঁদের অনেকে অভিযুক্ত।'


সবমিলিয়ে ভারতীয় সংশোধনাগারের ৩,৩০,৪৮৭ জন বন্দির মধ্যে স্নাতকোত্তর রয়েছেন ১.৬৭ শতাংশ এবং ইঞ্জিনিয়ার রয়েছেন ১.২ শতাংশ। তাঁদের দক্ষতাকে সংশোধনাগারের ভালো কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। ডিজির কথায়, ‘জেলের প্রযুক্তিগত উন্নতির ক্ষেত্রে কার্যকরী ভূমিকা নিচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেকনিক্যাল ডিগ্রিধারী বন্দিরা। যেমন ধরুন অনেক প্রতিভাধর ইঞ্জিনিয়ার বন্দি জেলে ই-প্রিজন মডিউল চালু করেছে। কেউ আবার জেলের সিস্টেমের কম্পিউটারাইজেশন করেছে। জেল প্রাঙ্গণে জেলের রেডিয়ো ইনস্টলেও তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে। অনেকে শিক্ষকতা করছেন, অনেকে আবার ই-লিটারেসি প্রকল্পে যুক্ত রয়েছেন।’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only