বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

উগ্রবাদীদের রোষে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বিজ্ঞাপন প্রত্যাহার



পুবের কলম, নয়াদিল্লিঃ ডিটারজেন্ট পাউডার সার্ফ এক্সেলের বিজ্ঞাপনটি মনে আছে? গতবছরের এই বিজ্ঞাপনটি নিয়ে কম জলঘোলা করেনি কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদীরা। বিজ্ঞাপনে দাখানো হয়েছিল, দোলের দিন এক মুসলিম কিশোর ধবধবে সাদা পোশাক পরে মসজিদে নামায পড়তে যাচ্ছে। কিন্তু তার গায়ে কেউ যাতে রং দিতে না পারে, সেজন্য তাকে বাঁচাচ্ছে এক হিন্দু কিশোরী। বিজ্ঞাপনটিকে ‘লাভ জিহাদ’ তকমা দেওয়া হয়েছিল। সেই ঘটনারই যেন পুনরাবৃত্তি হল। মাঝখান থেকে শুধু বদলেছে সংস্থার নাম। এটুকুই যা!  তাতেই এবার হয়ে গেল ‘লঙ্কাকাণ্ড’। কট্টর হিন্দুত্ববাদীদের প্রবল রোষের ম‍ুখে বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নিতে বাধ্য হল ‘তানিষ্ক’।


সম্প্রীতির বার্তা দিয়ে দেখানো হয়েছিল বিজ্ঞাপনটি। তাতেই চটে লাল উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। ‘লাভ জিহাদ’ তকমা দিয়ে তারা রে-রে করে আসরে নেমে পড়েছে। হিরের এক প্রখ্যাত অলংকার সংস্থা ‘তানিষ্ক’ ট‍ু্ইটারে সম্প্রতি এই বিজ্ঞাপনটি প্রকাশ করেছে। তাতে দেখানো হয়েছে, একটি হিন্দু মেয়ে এক মুসলিম ছেলেকে বিয়ে করেছে। এবং দু’তরফের পরিবারই তা হাসিমখে মেনে নিয়েছে। বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়েছে, হিন্দু তরুণীটিকে বাড়ির মেয়ের মতো আপন করে নিয়েছে মুসলিম পরিবারটি। শুধু তাই নয়, বধূর খ‍ুশির জন্য কিছু হিন্দু পার্বণেও অংশ নিতে দেখা গিয়েছে মুসলিম পরিবারটিকে, যা তারা এর আগে কখনও করেনি।


আসলে তানিষ্ক তাদের নতুন ডিজাইনের গয়না ‘একাতভম’ প্রচারের জন্য বিজ্ঞাপনটি করেছিল। ৪৫ মিনিটের বিজ্ঞাপনটিতে দেখানো হয়েছে, মুসলিম পরিবারে আসা বধূটি অন্তঃসত্ত্বা। দক্ষিণ ভারতীয় হিন্দুরীতি অনুযায়ী, গর্ভবতী স্ত্রীকে নিয়ে ‘সীমান্থম’ (অন্তঃসত্ত্বা বউমার সাধভক্ষণ) অনুষ্ঠান হয়। সেই অনুষ্ঠানে ওই অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে গয়না দেওয়া হয়। বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়েছে, বধূর খ‍ুশির জন্য এই হিন্দু রীতিতেও অংশ নিচ্ছে মুসলিম পরিবারটি। বিজ্ঞাপনটি থেকে এই বার্তাও দেওয়া হয়েছে যে--- এটা হচ্ছে দু’টো আলাদা ধর্ম, পরম্পরা ও সংস্কৃতির এক সুন্দর মেলবন্ধন। 


তবে কট্টর হিন্দুত্ববাদীদের অবশ্য এই মেলবন্ধনে বেজায় চটেছে। হিন্দু-মুসলিমের এই বিয়ের বিজ্ঞাপনকে ‘লাভ জিহাদ’ তকমা দিয়ে তারা এই হিরে জুয়েলারি সংস্থার বিরুদ্ধে নাগাড়ে বিষোদ্গার করে চলেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তানিষ্কের বিরুদ্ধে একের পর এক কুৎসিত ও বিদ্বেষপূর্ণ পোস্ট হয়েছে। সংস্থাটিকে বয়কট করার ডাক দেওয়া হয়েছে। রীতিমতো ভাইরাল হয়েছে ‘বয়কট তানিষ্ক’ হ্যাসট্যাগটি। 


তাদের পালটা বক্তব্য, হিন্দু মেয়ে মুসলিমকে বিয়ে করছে শুধু এটা কেন দেখানো হচ্ছে? কেন এমনটা দেখানো হয় না---মুসলিম মেয়ে হিন্দু ছেলেকে বিয়ে করছে। যদিও অনেকে আবার তানিষ্কের পাশে এসেও দাঁড়িয়েছে। তাদের বক্তব্য, বিজ্ঞাপনটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি তুলে ধরতে চেয়েছে। এর পিছনে আর অন্য কোনও উদ্দেশ্য নেই। তবে কট্টর হিন্দুত্ববাদীদের নাগাড়ে বিদ্বেষ আক্রমণের ম‍ুখে মঙ্গলবার বিজ্ঞাপনটি প্রত্যাহার করে নেয় তানিষ্ক। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only