বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০

প্রয়াত রাজ্য বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হাঁসদা

 


পুবের কলম ওয়েব ডেস্ক: প্রয়াত হলেন রাজ্য বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হাঁসদা। বৃহস্পতিবার সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে তিনি ক্যান্সারে ভুগছিলেন। তাঁর প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর।
বৃহস্পতিবার সকালে বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে বেশ কিছুদিন ধরে ভর্তি ছিলেন রাজ্য বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হাঁসদা। দীর্ঘ লড়াই শেষে এ দিন সকাল ১১.১৫-তে হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।তাঁর মৃত্যুতে ট্যুইট করে গভীর শোক প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শোক প্রকাশ করেন বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ও। প্রসঙ্গত, ২০১১ সালে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়নমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন পেশায় চিকিত্‍সক সুকুমার হাঁসদা। ২০১৬ সালেও বিধানসভা নির্বাচনে জেতেন তিনি। এরপর, ২০১৮ সালে প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার হায়দার আজিজ সাফির মৃত্যু হলে বিধানসভার ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব দেওয়া হয় সুকুমার হাঁসদাকে। নিজের বিধানসভা কেন্দ্র ঝাড়গ্রাম-এর সামগ্রিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন প্রয়াত তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও প্রাক্তন মন্ত্রী সুকুমার হাঁসদা।
পুরোপুরি রাজনৈতিক পরিবারে জন্ম সুকুমার হাঁসদার। তাঁর বাবা সুবোধচন্দ্র হাঁসদা ১৯৫৭-৬২ সালে কেন্দ্রের কংগ্রেস সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। তাই রাজনীতিতে হাতেখড়ি হতে বেশি সময় লাগেনি সুকুমার বাবুর। একটা সময় কংগ্রেস ছেড়ে তিনি যোগদান করেন তৃণমূলে।
এদিন তাঁর প্রয়াণে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, 'পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার উপাধ্যক্ষ ডঃ সুকুমার হাঁসদার প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ কলকাতায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। ডঃ হাঁসদা তাঁর সারা জীবন আদিবাসীদের উন্নয়নব্রতে উৎসর্গ করেছিলেন। আদিবাসী আন্দোলনে ও আদিবাসী মানুষের কল্যাণসাধনে তাঁর ভূমিকা ও অবদান ছিল বিরাট। আদিবাসী সমাজের অভ্যন্তরে থেকে তিনি তাঁদের বিকাশে নিজের জীবন অতিবাহিত করেন। তিনি ঝাড়গ্রাম কেন্দ্র থেকে দু'বার বিধায়ক নির্বাচিত হন। পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রীর দায়িত্বও তিনি পালন করেছেন। আমি সুকুমার হাঁসদার পরিবার-পরিজন ও অনুরাগীদের আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।' অত্যন্ত বিনয়ী ও কাজের মানুষ সুকুমারবাবুর মৃত্যুতে গোটা ঝাড়গ্রাম জুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।এদিকে সুকুমার হাঁসদার প্রয়াণে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এ দিন সব রাজ্য সরকারি অফিসে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only