শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০

দেশজুড়ে ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের



পুবের কলম প্রতিবেদকঃ নয়াদিল্লি­ মত প্রকাশের স্বাধীনতার নামে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ সা.-কে অবমাননা করেছিল ফরাসি পত্রিকা শার্লি এবদো। সারাদুনিয়ার ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা গর্জে উঠেছিল এই কুরুচিকর কার্টুনের বিরুদ্ধে। সেই দেশেই এক শিক্ষক সম্প্রতি নবী সা.-এর কার্টুন এঁকে এবং সেটা প্রদর্শন করে বিতর্ক ছড়িয়েছেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো এই ইসলাম বিদ্বেষী পদক্ষেপের বিরোধিতা না করে এর পক্ষেই সওয়াল করেছেন। এর আগেও এই ধরনের ঘটনা সেখানে ঘটেছে। অথচ কোনও অনুতাপ নেই,অহংকারী হয়ে উঠেছে ফ্রান্স। প্রিয় নবী সা.-এর সম্মানহানি করার প্রচেষ্টার প্রতিবাদে বিভিন্ন ফরাসি পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ড। তুরস্ক, পাকিস্তান,কুয়েত,কাতার ইতিমধ্যে ফরাসি পণ্য বয়কট শুরু করে দিয়েছে। ভারতে মুসলিমদের প্রতিনিধিস্থানীয় সংগঠনটির সেক্রেটারি মাওলানা মুহাম্মদ উমরাইন মাহফুজ রহমানি এই আবেদন জানান। ইসলাম ও মুসলিমদের নিয়ে ম্যাক্রোর বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েই পার্সোনাল ল’ বোর্ডের এই আহ্বান। এর আগেও বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিয়েছে দেশের মুসলিমদের এই জোট সংগঠনটি। কয়েকদিন থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফরাসি পণ্য বর্জনের হিড়িক দেখা যাচ্ছে। এই আহ্বানের ফলে দেশজুড়ে মুসলিমরা আরও ব্যাপক আকারে ফরাসি কোম্পানির প্রস্তুত করা জিনিসগুলি বর্জন শুরু করবে বলে মনে করছে ওয়াকিফহাল মহল। ম্যাক্রোর মন্তব্যের বিরোধিতা করে ভোপালে প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন বহু মানুষ। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কংগ্রেস বিধায়ক আরিফ মাসুদ দাবি করেন ফ্রান্সে নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে যেন তাদের এই মুসলিম বিরোধী অবস্থানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হয়। যদিও কেন্দ্রের মোদি সরকার বিষয়টির বিরুদ্ধে কোনও প্রতিবাদ জানিয়ে মুসলিমদের পাশে দাঁড়ায়নি।


অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ড ফরাসি প্রেসিডেন্টের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানালেও বিদেশ মন্ত্রক ম্যাক্রোর বিরুদ্ধে যায়নি। বিদেশ মন্ত্রক ম্যাক্রোর বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আক্রমণের নিন্দা জানিয়েছে এক বিবৃতিতে। প্রেসিডেন্টের সমর্থন করায় কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের অবস্থান ফ্রান্সের পক্ষেই তা স্পষ্ট। দেশের মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিজেপি পরিকল্পিত বিদ্বেষ ছড়িয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে মুসলিম বিরোধী ফ্রান্সের সুরে গলা মেলাবে এ দেশের হিন্দুত্ববাদী মহল তাতে আশ্চর্যের কিছু নেই। শিক্ষক হত্যারও নিন্দা জানিয়েছে বিদেশ মন্ত্রক। সুদূর ফ্রান্সে বসবাসরত তার পরিবারকে সান্ত্বনাবাণী দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে কেন্দ্র। তবে দেশসহ বিশ্বের মুসলিমদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত লাগার পরেও এ ধরনের কোনও বিবৃতি শোনা যায়নি মন্ত্রকের পক্ষ থেকে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only