বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০

টয়লেটে ঢুকে দলিত কিশোরীকে গণধর্ষণ উত্তরপ্রদেশে



পুবের কলম, লখনউঃ উত্তরপ্রদেশে কন্যাদের সঙ্গে অত্যাচারের ঘটনা বেড়েই চলেছে। কার্যত কন্যারা সুবিচার পেতে দরজায় দরজায় ঘুরতে বাধ্য হচ্ছে। সম্প্রতি রাজ্যটির এটাহ জেলায় টয়লেটে ঢুকে এক দলিত কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।রাজ্যটিতে পুলিশের উদাসীনতার ফলে হতাশ হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কন্যারা আত্মহত্যা করতে বাধ্য হতে হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে সম্প্রতি এ ধরণের একটি ঘটনায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে পুলিশের উদাসীনতার কারণে দু’জন কন্যা প্রাণ দিয়েছেন। 


এবার রাজ্যটির এটাহতে এক দলিত কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনার পরে গণধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবারের লোকজন সুবিচারের দাবিতে থানার দরজায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। কিন্তু পরিবারের কথা কেউ শুনছে না। প্রাক্তন প্রধান এবং তার দুই সহযোগী কিশোরীর সাথে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছিল বলে অভিযোগ। ক্ষতিগ্রস্ত কিশোরটি ৬ বছরের একটি ছোট শিশুকে শৌচালয়ে নিয়ে গিয়েছিল। ওই সময়েই টয়লেটের মধ্যে গণধর্ষণের ঘটনাটি ঘটানো হয়েছিল বলে অভিযোগ। 


ভুক্তভোগী কিশোরী সূত্রে প্রকাশ, ওই ঘটনায় প্রাক্তন প্রধান রাজীব, অনিল ও আকাশ নামে অভিযুক্তরা জড়িত ছিল। উল্লেখিত ওই তিনজন তাকে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে। ক্ষতিগ্রস্ত কিশোরী এবং তার মা থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁদেরকে থানা থেকে বের করে দেওয়া হয়। এরপরে সুবিচারের আশায় ক্ষতিগস্ত কিশোরী আলিগঞ্জে যান। 


পরিবারের লোকজন আশা করেছিলেন, সম্ভবত উচ্চপদস্থ আধিকারিক তাঁদের কথা শুনবেন এবং তাঁরা ন্যায়বিচার পাবেন। কিন্তু এখান থেকেও তাঁদেরকে হতাশ হয়ে ফিরে আসতে হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ওপি সিং গণমাধ্যমে বলেন, তদন্তে ঘটনাটি সঠিক পাওয়া গেছে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হচ্ছে। ওই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে শীঘ্রই জেলে পাঠানো হবে। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only