বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০

দিল্লিতে মাস্ক মাস্ট, না পড়লে জরিমানা ২০০০



নয়াদিল্লি, ১৯ নভেম্বর: করোনাকে জব্দ করে আরও সক্রিয় হল কেজরিওয়াল সরকার। এখন থেকে মুখ মাস্ক মাস্ট। মাস্ক না থাকলেই ৫০০ টাকা নয়। জরিমানা গুনতে হবে ২,০০০ টাকা। পাশাপাশি সব রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনগুলিকে মাস্ক বিতরণ করারও আর্জি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। 


করোনা আতঙ্ক বাড়িয়েছে রাজধানী শহরে। রেকর্ড ভেঙেছে দৈনিক সংক্রমণ। একদিনে আক্রান্ত সাড়ে ৮ হাজার ছাড়িয়েছে। অথচ এতো কিছুর পরেও হুঁশ নেই দিল্লিবাসীর। মাস্ক না পরেই বেপরোয়া ভাবে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করছে অনেকেই। তাই সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আরও কড়া পদক্ষেপ নিল কেজরিওয়াল সরকার। এর আগেই মার্চ মাসে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছিল সরকার। মাস্ক ছাড়া রাস্তায় ধরা পড়লেই ৫০০টাকা জরিমানার কথা জানানো হয়। কিন্তু কোভিড গ্রাফ যেভাবে দিন দিন ঊর্ধ্বমুখী, তাতে সংক্রমণকে জব্দ করতে আরও কড়া দাওয়াই দিল সরকার। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, মাস্ক না পড়লে ২ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হবে।


রাজধানীতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে গত রবিবার মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। দিল্লি সরকার জানিয়েছে, লকডাউন কামব্যাক করছে না ঠিকই। কিন্তু সংক্রমণকে বেড়ি পরাতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিল কেজরিওয়াল সরকার। কেন্দ্রের কাছে এই মর্মে প্রস্তাবও পাঠানো হয়েছে। অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, দিল্লির বাজারগুলি ক্রমশ করোনার হটস্পষ্ট হয়ে উঠছে। সামাজিক দূরত্ব না মেনে মাস্ক ছাড়াই বাজারে ঘোরাফেরা করছে মানুষ। সংক্রমণও তাই হুহু করে বেড়েছে। 

 

ইতিমধ্যেই কোভিড সেন্টারগুলিতে অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। শীতের সময় মহামারি আরও ভয়ঙ্কর রূপ নিতে পারে। তাই সব ধরণের প্রস্তুতি সেরে রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only