রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০

কমলা হ্যারিস ভাইস প্রেসিডেন্ট, খুশিতে আপ্লুত থুলাসেন্দ্রাপুরম গ্রাম



নয়াদিল্লি, ৮ নভেম্বর: মার্কিন মুলুকে প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়েছেন একজন মহিলা। তিনি আবার একজন ভারতীয়।যার ফলে খুশিতে ডগোমগো তামিলনাড়ুর থিরুভারুর জেলার থুলাসেন্দ্রাপুরম গ্রামের বাসিন্দারা। বিজয় উদযাপনে সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠে পড়েন তারা। বাড়ির সামনে আঁকা হয়েছে রঙ্গোলি।


ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ভাষণ দেয় কমলা হ্যারিস। সেই ভাষণে নিজের মা শ্যামলা গোপালনের দরাজ প্রশংসা করেন তিনি। কমলা বলেন, 'মাত্র ১৯ বছর বয়সে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আসি। মা হয়তো কল্পনাও করতে পারেননি এমন কোনও মুহূর্ত হবে। কিন্তু তিনি গভীরভাবে এমন এক আমেরিকায় বিশ্বাস রেখেছিলেন, যেখানে এই ধরনের মুহূর্ত তৈরি হতেই পারে।' 


কমলা হ্যারিসকে এই গ্রামেরই মেয়ে বলে মনে করেন গ্রামবাসীরা। নির্বাচনের আগেও কমলার সমর্থনে পোস্টার, ব্যানার হাতে দেখা যায় তাদের। মঙ্গলবার কমলার জয় চেয়ে পুজো দিতে দেখা যায় থিরুভারুর পাইগানাডুর বাসিন্দাদের। ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের দাদু ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা এই পাইগানাডু গ্রামের বাসিন্দা। কমলা হ্যারিসও এই গ্রামে এসেছেন কয়েকবার। পরে তাঁর দাদু গ্রাম ছেড়ে চলে যান। তবু মন্দির ও গ্রামবাসীদের সঙ্গে যোগাযোগ থেকে যায়। মন্দিরের সংস্কারের জন্য বহু অনুদান দিয়েছেন তাঁর পরিবার। ২০১৪ সালেও কমলা হ্যারিসের নামে অনুদান দেওয়া হয়।


মার্কিন রাজনীতিতে ভাইস প্রেসিডেন্টের কুর্সিতে প্রথম একজন কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা। নির্বাচিত হওয়ার পরই ট্যুইট করেন কমলা হ্যারিস। সেখানে লেখেন, 'এটা আমার বা জো বিডেনের নয়। আমেরিকার আত্মা ও আমাদের লড়াই করার মানসিকতার জয়। এখন আমাদের অনেক কাজ করতে হবে। এবার সেগুলো শুরু করা যাক।' 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ভিন্ন স্বাদের খবর

...
আপনার ক্যাটাগরি নির্বাচন করুন

Whatsapp Button works on Mobile Device only